সোমবার, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৩

সত্য সুন্দরের সন্ধানে-১৪ ” নিজের সিদ্ধান্তেই নিজের মত করে নিজের পায়ে দাঁড়াও “

রাজু আহমেদ মোবারক:
3)
“There are no secrets to success. It is the result of preparation, hard work, learning from failure.”– Colin L.Powell
আমরা মানুষ হিসেবে সত্য সুন্দরের সন্ধানে থেকেই সুন্দরের রুপ-কাঠামো অন্তরে প্রতিষ্ঠা করে যেন নিজেদের সিদ্ধান্তের আলোকেই নিজেদের পায়ে দাঁড়াই। আমরা যখনই নিজেদের পায়ে নিজেদেরকে দাঁড় করানোর জন্য আমাদের চিন্তার মাঝে চিন্তা শক্তির অনুভূতি

সংযোজিত করার চেষ্টা করি। আমাদের জীবনের জন্য পছন্দের উপাদানে নিজেদেরকে নিযুক্ত করার জন্য যোগ্যতার্জনের ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার কার্যক্রমে সংযুক্তির অভাব থাকে তাহলে আমাদের যোগ্যতার্জনের অভাবের কারণে নিজেদের সিদ্ধান্তে জীবন তৈরী করা কঠিনই হয়ে পড়ে। আমরা আমাদের চলমান জীবনে পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র এবং পৃথিবীর কাছ থেকেই অনেক কিছু শিখেই আমাদের জীবনকে উন্নিত করে চলি, কিন্তু এমন একটা সময় আসে আমাদের প্রত্যেকের জীবনেই নিজেদের জীবন থেকে নিজেদেরই অনেক কিছুই শিখতে হয়। আমরা আমাদের নিজেদের জীবন থেকে কি শিখতে চাই তা আমরা পুরোপুরি নিজেদের উপর নির্ভরশীল হয়ে নিশ্চিত হতে পারি না কারণ আমাদের নিজেদের উপর নিজেরাই কখনো কখনো পরিস্কার অনুভূতির শক্তিও অর্জন করতে পারি না। আমাদের পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় জীবনে যদি উপযুক্ত ও সন্মানিত মানুষ হয়ে জীবন শক্তির বিকাশের উপর নির্ভরশীল হতে চাই, আমাদেরকে যোগ্যতার্জন সব কিছুর আগেই করা চাই। মানুষের জীবন অতীব গুরুত্বপূর্ণ এবং মূল্যবান সম্পদ। এই মহান মূল্যবান সম্পদের প্রতি যখনই আমাদের মুগ্ধতা বেড়ে যায়, তখনই এই সম্পদের প্রতি আমরা মনোযোগ আকর্ষণ করি অন্তরে আকৃষ্ট হয়ে কারণ এর সমস্ত সৌন্দর্য অন্তরে ফুটিয়ে পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের মানুষের মাঝে ছড়িয়েও দিতে চাই। তুমি তোমার জীবনের প্রতি মুগ্ধিত প্রাণে হৃদয়ের টানে আকৃষ্ট না হও এবং এর রুপের স্বরূপ তোমার অন্তরে তোমাকে সুন্দর মনের মানুষ হিসেবে অনুরিত না করে হলে তুমি তোমার জীবনের প্রতি ভালবাসার টানে কোন অপরাধ কর্ম থেকে বিরত থাকার প্রাণ পাবে না। আমরা যখনই আমাদের জীবনের প্রতি মুগ্ধ প্রাণে চলার সৌন্দর্য খুঁজে পাব, আমরা যখনই পরিবার-পরিজন নিয়ে রাস্তায় বা প্রকৃতির পরশে গিয়ে হাঁটা হাঁটি করব, এর মাঝেও মনে অন্তরিত হওয়ার সৌন্দর্য খুঁজে পাব। আমরা যেন আমাদের জীবনকে ভালোবেসে জীবনের উপর মুগ্ধ থাকি। তাতে আমরা আমাদের অপরাধ ও পাপাচারের কর্ম থেকে দূরেও থাকতে পারি। তুমি যদি আসলেই তোমার জীবনকে মূল্যবোধের আলোকে ভালোবাস, তুমি কখনোই তোমার চরিত্রের সৌন্দর্যের মুগ্ধতার কারণে পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের ক্ষতিসাধণ হয় এইসব নগ্ন ও নিষ্ঠুর কাজ

করতেই পারবে না। আমরা যাদেরকে দেখতে পাই প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক সংযুক্তির মধ্যে নিজেদের নিয়োজিত রেখে দুর্নীতি ও অপরাধযুক্ত কর্মকান্ডে জড়িত থাকেন, তারা আসলেই তাদের অন্তরের চরিত্রে রুচিকর মানুষ নয়। এমন কি তারা তাদের জীবনের মুগ্ধতার সৌন্দর্যকে পূর্ণাঙ্গ রূপে ধরতেই পারেনি অন্তরের অনুভবের মনোরম মাধুর্য দিয়ে। আমরা যখনই সত্য সুন্দরের স্বরূপের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করে জীবন চলমান রাখব, তখনই আমরা আমাদের জীবনের সৌন্দর্য সমস্তই অনুভব করার মত বিশ্বস্ত প্রাণ পাব। কখনো কখনো আমাদের নিজেদের উপর বিশ্বস্ত প্রাণ খুঁজে পাই না। আমরা এই সমাজ ও রাষ্ট্রে আমাদের জীবন চালিত করার সময়ে লোভাতুর, আত্নকেন্রিক ও স্বার্থপর মানুষের সাথেও পরিচয় এবং সম্পর্কও হয়ে যায়, কিন্তু আমরা কখনো কখনো আমাদের অন্তরের চরিত্রে বিশ্বস্ত নয় বিধায় আমরা মতিভ্রম মানসিকতার মানুষও হয়ে যাই বৈষয়িক সুবিধা অর্জন করার জন্য। আমাদের নিজেদের সিদ্ধান্তে চালিত জীবনে নিজেদের পায়ে দাঁড়াতে পারলেও আমরা যেন মানুষের মনের পাশেই আমাদের মনটি রাখি। আমরা যখনই মানুষের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করে কথা বলব, আমরা যথেষ্ট উপযুক্ত লোক হয়ে গেলেও সমাজ ও রাষ্ট্রের মানুষের সাথে স্নেহাসপদ হৃদয়ে ও ভালোবাসার মাধুর্য ভরা কণ্ঠের আওয়াজে যেন কথা বলি। তুমি যখনই তোমার নিজের অন্তরে সুখি সুখি ভাবনার মনটি তোমার উন্নত জীবনের সাথে পুলকিত প্রাণে চালিয়ে যেতে সক্ষম হবে, তোমার পাশের মানুষেরাও তোমার প্রাণের সৌন্দর্য খুঁজে পাবে। তারাও পুলকিত প্রাণে তোমাকে সংগ দিবে। আমরা যদি পরিবারে, সমাজে এমন কি রাষ্ট্রেও ভালো মানুষ হতে চাই সত্য সুন্দরের পথে আমাদের মনকে আরোহণে রেখে তবে যেন আমরা সাধারণ ও সহজ পথ দিয়ে চলি। দেখ না নানা জাতি, নানা ধর্মের মানুষেরা জীবনের
মূল পথ থেকে সরে গিয়ে এতটাই কঠিনের মাঝে অন্তরীণ হয়েছেন যে, তারা আসল পথের সন্ধান নিজেরাই খুঁজে পাচ্ছেন না। ফলে তারা নিজেরাই পথহারা মানুষ হয়ে, নিজেদের ঘরেই বিচ্ছিন্নতা বৃদ্ধি করে মারামারি আর ধরাধরি করে সর্বনাশার গহীনেই চলে যাচ্ছেন। আমরা যদি সহজকে কঠিনে রুপান্তরিত করি, সহজ তার সহজের সৌন্দর্যের রুপটি হারিয়ে ফেলে। তবে জীবন গঠনের জন্য সহজ পথ নয়,

কঠিনেরে আপন করেই আপনার জীবন পেতে হয়। আমাদের সুন্দর জীবনের জন্য সত্য পথে মনকে পরিচালিত করে যে জীবন তৈরী হবে, সেই জীবন যেন সত্যাশ্রিত জীবন হয়। আমরা আমাদের জীবনকে উন্নতির চরম শিখরে দেখার জন্য যত প্রকার সামাজিক ও রাজনৈতিক কৌশল অবলম্বনে সমস্ত কাজই সমাপ্ত করে জীবনকে অনেক উঁচুতে তুলতে সক্ষম হলেও আমরা যেন অনেক উপরে উঠে গেছি এই ভাবনায় অন্যদেরকে তুচ্ছ ভেবে উল্লসিত বোধ না করি।
4)
“You are going to get knocked down. Get ready for it. Don’t get mad when it happens. And if you can’t adjust, you’ll miss it.”
এই সত্যটি আমাদের সকলেরই মনে রেখেই চলা উচিত যে, নিজের সিদ্ধান্তে নিজের পছন্দের কর্মের মাঝে যদি নিজের জীবনকে একান্তই নিজের মত করে চালিত করা না যায়, নিত্যকর্মও যথার্থ ভাবে করা যায় না। মানুষের নিত্য কর্মের সুযোগ একমাত্রই তাদের পছন্দের কর্মের দ্বারাই সম্ভব, যেখানে জীবন তাদের নিয়ন্ত্রণ থাকে। আমরা অন্যের পছন্দের কাজের উপর ভর করে কাজ চালিত করে সময় অতিক্রান্ত করতে পারি, কিন্তু কিছুতেই জীবনকে জীবনের মতো উপজীব্য করে অনুভব করা যায় না। আমরা সত্যিই যদি আমাদের উপজীব্য জীবনের মধুময় দিকগুলো বুঝতে চাই এবং জীবনের জন্য জীবনাস্বাদ পেতে চাই তবে আমরা যেন যোগ্যতার্জন করে পছন্দের কাজই খুঁজে বের করি। আমরা কখনো কখনো সময়াভাবে ও অর্থয়াভাবে নিত্যকর্ম করে যেতে পারি না। এই নিত্যকর্মে জীবনকে নিয়োজিত করার জন্য আমরা যেন উপযুক্ত মানুষ হয়ে পছন্দের কাজই করি। তোমার এই নিত্যকর্ম তোমার জীবনের জন্য তোমাকেই যে সম্পাদন করতে হবে সেইটাও কিন্তু নয়। তুমি অন্যের দ্বারাও সম্পাদন করে নিতে পার। তোমার মত করে তোমার নিত্যদিনের নিত্যকর্ম চলমান রাখার জন্য নিজেই নিজের জীবন পরিচালিত করতে হয়। আমরা যখন ভালো কোন কাজ করি যা সমাজ, রাষ্ট্র ও পৃথিবীর কোন উপকারে আসে, তখন সমস্ত বিশ্বের মানুষও স্বাগত জানাতে কোনই কার্পণ্য করেন না। আবার আমরাই যখন দেশ ও বিশ্বের ক্ষতিসাধন হয় এমন বাজে কাজ করে ফেলি, তখন সমস্ত বিশ্বের মানুষই আমাদের উপর ঘৃণার বহর ঢেলে দেয়। আমরা যখনই সত্য

সুন্দরের সন্ধানে আমাদের জীবন গড়ার জন্য নিজেদের মনের মধ্যে বাস করি, আমাদের এই মনই পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের মানুষের কাছে শ্রদ্ধাশীল ও সুন্দর চরিত্রের মানুষে রুপান্তরিত করে। আমরা আমাদের জীবনের প্রসারতা চাই। জীবনের এই প্রসারতার জন্য নিজেদের সিদ্ধান্তেই আমাদের জীবন পরিচালিত করে যেতে হয়, কিন্তু জীবনের জন্য জীবনাস্বাদ পেয়ে অনুভূতির শক্তি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ মানুষ হিসেবে জীবনকে প্রসার করার জন্য অন্তরে অগ্নিশিখার স্রোত যেন প্রতিনিয়তই তাড়িত করে। প্রত্যেক জিনিসেরই নিজের স্বকীয় বৈশিষ্ট্যের রুপ তার আপন কাঠামোর মাঝেই নিহিত থাকে। জিনিসটি তার আপন কাঠামোর বহনে চলতে গিয়ে, যখনই বাঁধা খেয়ে এর রুপের বৈশিষ্ট্য নষ্ট করে ফেলে, তখন একে আর এর স্বীয় বৈশিষ্ট্যে চেনাই যায় না। ঠিক আমরা মানুষ হিসেবে যে রুপের কাঠামো ও বৈশিষ্ট্যে ফুটঁ উঠার কথা, তা যদি নানান কারণে তার মূল চরিত্র থেকে দূরে সরে যায়, সেই মানুষই আর এই মানুষ হয় না যে, মানুষটি আমরা হওয়ার কথা ছিল। তুমি যদি তোমার অপরাধের কারণে দন্ডিত হয়ে জেলকুঠুরিতে থেকে যে যাতনা ও কষ্ট নিয়ে তোমার জীবন অতিবাহিত করেছ, এই তুমিই যদি অপরাধ কর্মের মাঝে নিজেকে সম্পৃক্ত না করে নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারতে, তুমি অন্য একজন সুন্দর মানুষই হতে পারতে যা তুমি এখনও বুঝে উঠতে পারনি তার প্রার্থক্যটুকু কারণ সেই উন্নত জীবনের রুপান্তরিত হওয়ার বৈশিষ্ট্যের চরিত্রে যাওয়ার কোন সুযোগই তোমার হয়নি বা সেই সুযোগ সৃষ্টি করার দৃঢ় অঙ্গীকার তুমি তোমার মন থেকে কখনোই করনি। আমরা আমাদের জীবনকে যদি একেবারে প্রসারতার চূড়ান্ত শিখরে দেখতে চাই জীবনের প্রতিটি পরতে পরতে তবে যেন আমাদের জীবনকে অন্তরের প্রতিজ্ঞায় বিশেষ ভাবে নিয়োজিত রাখি। আমাদের মনকে শূন্যস্হানে ফেলে রেখে, এই শূন্যমন দিয়ে কোন কিছুই ভরাট করা যায় না। আমাদের মন যদি জেলকুঠুরিতে যাওয়ার জন্য মন্দ কাজ করে যেতেই থাকে, কোন না কোন দিন এই শরীরটাও এই জেলকুঠুরিতে না হোক, এই জেলকুঠুরির মতই অন্য কোন বন্দীশালায় বন্দী তাকে হতেই হবে। আমরা যেন সত্য সুন্দরের সন্ধানে থাকি যাতে জেলকুঠুরিতে না গিয়ে সেই মুক্ত জীবনে সুন্দর মনের উপর কোন যাতনা বহন না করে চলি। আমরা যখনই যোগ্য মানুষ হওয়ার জন্য

জীবনের শুরুতেই চিন্তা শক্তির অনুভূতির যোগ্যতা উন্নত করে ধীরে ধীরে নিজেদেরকে উপযুক্ত মানুষে পরিণত করতে সক্ষম হব, তখনই নিজেদের সিদ্ধান্তে নিজেদের জীবন চালিত করে নিজেদের পায়ে দাঁড়াতে সক্ষম হব। নিজের সিদ্ধান্তে নিজের জীবনকে একান্তই নিজের মত চালিত করার উপযুক্ত প্রাণ তৈরী কর। নতুবা, তোমার সামনে যে কেউই কারো প্রশংসা করে কথা বলতে শুরু করলে তোমার অন্তরে এক ধরনের যন্ত্রণা শুরু করে দিয়ে দিবানিশি তোমার সুখ হরণ করবে। তুমি যদি পৃথিবীর মানুষকে প্রাণ দিয়ে তোমার নিজের মাঝে ভালবাসাবাসির টানে তৈরী কর, পরশ্রীকাতর মানসিকতা তোমার অন্তরে কখনো উদিতই হবে না। আমরা যদি সত্য সুন্দরের স্বরূপ নিয়ে আমাদের জীবন চলমান রাখি এবং সততার চরিত্রই জীবনের একমাত্র সম্বল হিসেবে তৈরী করি তাহলে আমাদের নিজেদের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য মহান প্রাণও সৃষ্টি করে যেতে পারি।
“Remember you will not always winsome days, the most resourceful individual will taste defeat. But there is always tomorrow.”–
লেখক:কলামিস্ট,গবেষক ও সমাজ বিশ্লেষক।

Latest news

বামনায় কৃষিজমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায় নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য

বামনা প্রতিনিধি: বরগুনার বামনা উপজেলার ইউনিয়নের একাধিক স্থানের কৃষি জমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়। ফলে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য। যেন দেখার কেউ নেই। সরেজমিনে দেখা...
- Advertisement -

কৃষি উৎপাদন অব্যাহত রাখতে সার, বীজের দাম বাড়ানো হবে না : কৃষিমন্ত্রী

টাচ নিউজ ডেস্ক : কৃষি উৎপাদনের ধারা অব্যাহত রাখতে সার, বীজসহ কৃষি উপকরণের দাম বাড়ানো হবে না বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম...

কলেজ ছাত্রী ইতিমা মন্ডল প্রধানমন্ত্রীর কাছে জীবন ভিক্ষা চায় ও বসতবাড়ী ভিটামাটি ফিরিয়ে পেতে চায়

টাচ নিউজ ডেস্ক:খুলনা সরকারী আজম খান কমার্স কলেজ ছাত্রী খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় ঠিকরাবাদ গ্রামের হতদরিদ্র নারায়ণ মন্ডলের কন্যা ইতিমা মন্ডল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে...
Related news

বামনায় কৃষিজমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায় নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য

বামনা প্রতিনিধি: বরগুনার বামনা উপজেলার ইউনিয়নের একাধিক স্থানের কৃষি জমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়। ফলে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য। যেন দেখার কেউ নেই। সরেজমিনে দেখা...

কৃষি উৎপাদন অব্যাহত রাখতে সার, বীজের দাম বাড়ানো হবে না : কৃষিমন্ত্রী

টাচ নিউজ ডেস্ক : কৃষি উৎপাদনের ধারা অব্যাহত রাখতে সার, বীজসহ কৃষি উপকরণের দাম বাড়ানো হবে না বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম...

কলেজ ছাত্রী ইতিমা মন্ডল প্রধানমন্ত্রীর কাছে জীবন ভিক্ষা চায় ও বসতবাড়ী ভিটামাটি ফিরিয়ে পেতে চায়

টাচ নিউজ ডেস্ক:খুলনা সরকারী আজম খান কমার্স কলেজ ছাত্রী খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় ঠিকরাবাদ গ্রামের হতদরিদ্র নারায়ণ মন্ডলের কন্যা ইতিমা মন্ডল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে...
- Advertisement -