ঢাকা | মে ২৭, ২০২৪ - ১২:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

পাকিস্তানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা

  • আপডেট: Saturday, August 12, 2023 - 12:28 pm
  • পঠিত হয়েছে: 339 বার

টাচনিউজ ডেস্ক: পাকিস্তানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার (১২ আগস্ট) দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এ নাম ঘোষণা করে। খবর ডন ও জিও নিউজের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আনোয়ারুল হক কাকারকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী করা হয়েছে। তিনি এর আগে বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টির (বিএপি) সিনেটর ছিলেন। শনিবার প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের সঙ্গে বিরোধীদলীয় নেতা রাজা রিয়াজের বৈঠকের পর তার নাম ঘোষণা করা হয়। আলোচনায় আনোয়ারুলের ব্যাপারে তারা একমত হন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ ও বিরোধীদলীয় নেতা রিয়াজ সিনেটর আনোয়ারের নাম প্রস্তাব করেন। তারা প্রস্তাবনাটি প্রেসিডেন্ট আলভির কাছে পাঠিয়েছেন।

এর আগে সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বৈঠকের পর রিয়াজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন। তিনি বলেন, আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রদেশের কারও নাম প্রস্তাবনা করেছি। আমরা এ আলোচনায় পৌঁছেছি যে আনোয়ারুল হক কাকারকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী করা হবে।

দেশটিতে গত ৯ আগস্ট সংসদের জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেওয়া হয়। নিয়মানুযায়ী সংসদ ভেঙে দেওয়ায় দেশের ক্ষমতা চলে যাবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে। ফলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন, তা নিয়ে ছিল নানা জল্পনা কল্পনা। রাজনীতি বিশ্লেষক ও পণ্ডিতরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান হিসেবে বিভিন্ন জনের নাম সামনে নিয়ে আসতে থাকেন।

সরকার ভেঙে দেওয়ার দিন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য এখনো কাউকে চূড়ান্ত করা হয়নি। জোটের শরিক ও পাকিস্তান মুসলিম লীগের (নওয়াজ) প্রধান নওয়াজ শরিফের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা চলছে।

পাকিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রাজা রিয়াজ আলোচনার মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী মনোনীত করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে ছিলেন কারা কারা?

দেশটিতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী পদে সর্বপ্রথম বিদায়ী অর্থমন্ত্রী ইসহাক দারের নাম গণমাধ্যমে আসে। যদিও পরবর্তী সময়ে বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছিল ক্ষমতাসীন জোট।

সম্প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ জানিয়েছিলেন, সাবেক অর্থমন্ত্রী হাফিজ শেখের নাম তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছে।

ক্ষমতাসীন জোট পিএমএল-এন-এর শহীদ খাকান আব্বাসি এবং পাঞ্জাবের সাবেক গভর্নর মাখদুম আহমেদ মাহমুদও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে ছিল— জিও নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল। এ ছাড়া এই পদের জন্য সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ও ওয়াশিংটনে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত জলিল আব্বাস জিলানির নামও শোনা গিয়েছিল।