ঢাকা | মে ২৬, ২০২৪ - ১১:১৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম

তালাকের পরেও মেয়েকে উত্যক্ত করা আশিক এর কারাদণ্ড

  • আপডেট: Sunday, July 9, 2023 - 9:44 am
  • পঠিত হয়েছে: 64 বার

আনিছ আহম্মদ হানিফ,চাটখিল নোয়াখালী প্রতিনিধি:নোয়াখালীর চাটখিলে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনে একজনকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে চাটখিল উপজেলার এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরানুল হক ভূঁইয়া।

গত বুধবার (৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়ন সাত্রাপাড়াতে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনে এ সাজা প্রদান করা হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামী আশিক এলাহী (১৭) উপজেলার ৮নং নোয়াখলা ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড সাত্রাপাড়া গ্রামের আমির উদ্দিন মিঝি বাড়ীর হারুনুর রশিদের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সাজাপ্রাপ্ত আসামী আশীক এলাহী পার্শ্ববর্তী সোনাইমুড়ী উপজেলার দেওটি ইউনিয়নের ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী ১৬ বছর বয়সী অপ্রাপ্ত বয়স্ক একটি মেয়েকে জোর করে তুলে নিয়ে ভুয়া তথ্য দিয়ে নকল জন্ম নিবন্ধন উপস্থাপন করে নোটারির মাধ্যমে গত মার্চ মাসে দুই লক্ষ টাকা দেনমোহরে বিয়ে করেন। তিনি কাগজপত্র ঘষামাজা করে নিজের বয়সও বদলে ফেলেন।

উভয় পরিবারের জানাজানির পর গত এপ্রিলে তাদের তালাক হয়ে যায়। কিন্তু তালাক হয়ে যাওয়ার পরেও সাজাপ্রাপ্ত আশেক এলাহী মেয়েটিকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসছিলেন। এসএসসি পরীক্ষার সময় যাতায়াতে তাকে বাঁধা দেওয়ার পাশাপাশি মেয়েটির পরিবারকে বিভিন্ন হুমকি প্রদান করেছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবার।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইমরানুল হক ভূঁইয়া বলেন, “বাল্যবিবাহ, প্রকৃত বয়স চুরি, রাস্তায় মেয়েকে উত্যক্ত করাসহ ভিন্ন ভিন্ন অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আশেক এলাহীকে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর ৭ধারা মোতাবেক ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

ভ্রাম্যমান আদালতে সহযোগিতা করেন চাটখিল থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ সুমনের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা। উপ-পরিদর্শক সুমন বলেন সাজা প্রাপ্ত আসামীকে বুধবার জেলহাজতে প্রেরণের করা হয়েছে।