ঢাকা | মে ২৮, ২০২৪ - ৩:৩৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

আগামী জাতীয় নির্বাচন বর্তমান সরকারের অধীনে হবে- মাহবুবউল আলম হানিফ

  • আপডেট: Monday, November 21, 2022 - 6:56 am
  • পঠিত হয়েছে: 72 বার

আনিছ আহম্মদ হানিফ, চাটখিল নোয়াখালী প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, বিএনপি দেশের ভালো চায় না। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে হুমকি দেন অবাক হয়ে যেতে হয়। আগামীতে যে জাতীয় নির্বাচন হবে, সে নির্বাচনে সব দল অংশ গ্রহণ করুক সেটা আমরা চাই। জাতীয় নির্বাচন হবে সংবিধান সম্মত ভাবে। বর্তমান সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে। বর্তমান নির্বাচন কমিশন এ নির্বাচন পরিচালনা করবে।

শনিবার (২০ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা পাচগাঁও মাহবুব সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও একটিভ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবিরের সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি কে উদ্দেশ্য করে মাহবুবউল হক হানিফ বলেন, যদি নির্বাচন অধীক গ্রহণ যোগ্য ও ক্রটি মুক্ত করতে আপনাদের যদি কোন পরামর্শ থাকে সংবিধানের মধ্যে থেকে আপনারা দিতে পারেন। অবশ্যই সেটা বিবেচনা করবে সরকার সেটা বিবেচনা করবে নির্বাচন কমিশন। তবে সংবিধানের বাহিরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। যারা স্বাধীনতা বিরোধী পাকিস্তানের দোসর,যারা পাকিস্তানের তাবেদার, পাকিস্তান আদর্শ নিয়ে চলে, তাদের কথায় সংবিধান পরিবর্তন হওয়ার কোন সুযোগ নেই। যদি আপনারা সংবিধানের মধ্যে থেকে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেন, তাহলে আপনাদেরকে স্বাগত। আর যদি না করেন তাহলে সেটার দায়ভার আপনাদের।

মির্জা ফখরুলে উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আপনারা আপনাদের কর্মীদের হত্যার বিচার চান। বিচার হচ্ছে বিচার তো শুরু হয়েছে । আপনাদের নেত্রী এক বিচারে কারাগারে আরেকজন দণ্ডপ্রাপ্ত আটক। ২০১৩,১৪,১৫ সালে আপনারা আন্দোলনের নামে পেট্রোল দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারছেন। সরকারি সম্পদ নষ্ট করেছেন সে সব মামলা আছে ও বিচার ও হচ্ছে। এসব হত্যাকণ্ডের দায়ভার নিয়ে আপানদের নেত্রীর মত হয় কারাগারে নয়ত দন্ডপ্রাপ্ত হয়ে পালাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির সৃষ্টি হয়েছে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএস এর হাতে। বিএনপি-জামাত কখনো বাংলাদেশের উন্নয়নে বিশ্বাস করেনা।

উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আবু তাহের ইভু ও সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তরুণের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন
সংসদীয় হুইপ চট্টগ্রাম বিভাগীয় দায়িত্বে কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আবু ছায়েদ আল মাহমুদ স্বপন, সম্মলিত সাংস্কৃতিক ঐক্য জোটের আহ্বায়ক গোলাম কুদ্দুস, সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নোয়াখালী জেলা মুজিব বাহিনীর প্রধান মাহমুদুর রহমান বেলায়েত, ফেনী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি, নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ফরিদা খানম সাকি, যুগ্ম আহ্বায়ক শিহাব উদ্দিন শাহীন, যুগ্ম আহ্বায়ক নোয়াখালী পৌরসভা মেয়র শহীদ উল্লাহ খান সোহেল, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও চাটখিল উপজেলা আওয়ামীলীগের কমিটির সমন্বয়ক আবুল নাছের প্রমূখ।