ঢাকা | মার্চ ২, ২০২৪ - ১:১৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সভাপতি রাশেদুল ও সাধারণ সম্পাদক হাবীব

  • আপডেট: Tuesday, April 4, 2023 - 1:53 pm
  • পঠিত হয়েছে: 37 বার

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশের বিভিন্ন আদালতে আইন পেশায় নিয়োজিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইনজীবী সমিতি’ (জেএনইউএলএ) -এর ২৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। সংগঠনের গঠনতন্ত্রের ১২ ধারা মোতাবেক সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে নির্বাচিতদের নিয়ে আগামী ১ বছরের জন্য এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।
সুপ্রিম কোর্ট বারের প্লাটিনাম লাউঞ্জে গত ৩০ মার্চ সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত সভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর চার সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত নির্বাচন কমিশন এ ফলাফল ঘোষণা করেন। কমিশনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন হাবিবুর রহমান, আর সদস্য হিসেবে ছিলেন এস. এম. সোহাগ, মো. শামসুর রহমান ও মো. সাজ্জাদ হোসেন।


২৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি
কমিটিতে অ্যাডভোকেট রাশেদুল হককে সভাপতি এবং অ্যাডভোকেট মো. হাবিবুল্লাহ হাবীবকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। তাঁরা দু’জনই বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের দ্বিতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন।
কমিটির অন্যান্য পদে যারা রয়েছেন- সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. তারিকুল ইসলাম, সহ সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস এমি ও মো. ফরহাদ হাফিজ, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. শমসের মবিন তিয়াস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ আল মুজাহিদ, আব্দুল বাসিত রনি, ইখলাসুর রহমান মামুন ও কাওসার আহমেদ আকাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক রাজু শিকদার, হেলাল উদ্দিন ও নুরুল্লাহ সিদ্দিকী নিলয়, দপ্তর সম্পাদক মো. ওবাইদুল্যাহ আল মামুন (সাকিব), প্রচার সম্পাদক মো. আলী আকবর হোসেন (আকাশ), ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. আলী আশরাফ, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এম. এ. লতিফ, উপ-সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সালেহীন মোল্লা, নারী বিষয়ক সম্পাদক সাদিয়া আফরিন, উপ-নারী বিষয়ক সম্পাদক তাফান্নুম বিনতে কিবরিয়া, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. সাজ্জাদ হোসেন, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মো. আরিফ হসেন, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. জামাল রহমান এবং লাইব্রেরী বিষয়ক সম্পাদক আবু নোমান আরিফ।
গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী, আইন শিক্ষা, আইন পেশার উন্নয়ন, পরিকল্পনা, গবেষণা ও আইনজীবীদের কল্যাণমুখী সংগঠন হিসেবে কাজ করবে এই সমিতি।
এই সংগঠনের উদ্দেশ্য হচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে (স্নাতক) উত্তীর্ণ আইন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভাতৃত্ববোধ, সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য বৃদ্ধি করা; সংগঠনের সদস্যদের পেশার মান উন্নয়নে কার্যকরী ভূমিকা রাখা; সদস্যদের উত্তরোত্তর পেশাগত উন্নয়নে সক্রিয় ভূমিকা রাখা; যেকোনো দুর্যোগ, মহামারী, বিপর্যয় ও সংকটে সংগঠনের সদস্যদের সাহায্যে এগিয়ে আসা; সময়ে সময়ে ডিরেক্ট্ররী প্রকাশ করা; আইন বিষয়ক সভা, সেমিনার, সিম্পোজিয়াম করে আইনজীবীদের বিষয়ভিত্তিক জ্ঞান বৃদ্ধি করা তথা আইন শিক্ষার্থীদের মধ্যে আইন বিষয়ক দক্ষতা বৃদ্ধি করা; আইনের শাসন বাস্তবায়নে সরকারের বিভিন্ন আইন সংশোধন, সংযোজন ও বিয়োজন করার জন্য যুক্তি উপস্থাপন পূর্বক জনমত সৃষ্টি করা; সামাজিক দায়িত্ব হিসেবে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন পড়ুয়া অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি চালু করা; পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে গুনগত ও বাস্তবধর্মী প্রায়োগিক শিক্ষা পদ্ধতি ও কর্ম কৌশল গ্রহণে সহায়তা করা ইত্যাদি।