টাচ নিউজ ডেস্কঃ সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ইরাকে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) মতাদর্শ এবং আত্মঘাতী হামলা চালানোর জন্য বিস্ফোরক দিয়ে তৈরি গাড়ি রফতানির অভিযোগ করেছেন লেবানন-ভিত্তিক শিয়া মুসলিমদের সশস্ত্র সংগঠন হেজবুল্লাহর মহাসচিব হাসান নাসরাল্লাহ। সোমবার টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে তিনি সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের সমালোচনা করে এই অভিযোগ করেন।

সৌদি বাদশাহকে উদ্দেশ্য করে হাসান নাসরাল্লাহ বলেন, সন্ত্রাসী তিনি; যিনি বিশ্বে দায়েশের মতাদর্শ রফতানি করেন। সৌদি আরবে ইসলামিক স্টেটকে দায়েশ নামে ডাকা হয়।

হেজবুল্লাহর এই মহাসচিব বলেন, ‘সন্ত্রাসী হলেন সেই ব্যক্তি যিনি হাজার হাজার সৌদি নাগরিককে ইরাক এবং সিরিয়ায় আত্মঘাতী হামলা চালানোর জন্য পাঠিয়েছেন এবং আপনি সেই সন্ত্রাসী।’

যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রক্ষা এবং ইয়েমেনে বছরের পর বছর ধরে সামরিক অভিযান পরিচালনার জন্য সৌদি আরবের নিন্দা জানিয়েছেন হাসান নাসরাল্লাহ। লেবাননের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ এবং সমালোচক—যারা অর্থনৈতিক সংকটে পড়া লেবানন এবং সৌদি আরবের সম্পর্ক নষ্ট করার জন্য ইরান-সমর্থিত হেজবুল্লাহর সমালোচনা করেছেন, তাদের সমালোচনার প্রতিক্রিয়ায় নাসরাল্লাহ এসব মন্তব্য করেন।

হেজবুল্লাহর এই নেতা বলেন, ‘আমরা সৌদি আরবে হামলা চালাইনি। কিন্তু সৌদি আরব এই অঞ্চলকে ধ্বংসের বৃহত্তর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।’

নাসরাল্লাহর ভাষণের পর লেবাননের প্রধানমন্ত্রী নাজিব মিকাতির কার্যালয় একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নাসরাল্লাহর মন্তব্য লেবাননের সরকার এবং জনসংখ্যার একটি বিস্তৃত অংশকে প্রতিফলিত করে না। সরকার আঞ্চলিক দ্বন্দ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং দেশের অর্থনৈতিক সংকট উত্তরণে সব রাজনৈতিক শক্তির সহযোগিতা প্রয়োজন বলে বিবৃতিতে জানিয়েছেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে