টাচ নিউজ ডেস্ক: আফ্রিকার দেশ সুদানে বিতর্কিত সামরিক অভ্যুত্থানের পর সামরিক কাউন্সিলের প্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহানের সঙ্গে এক চুক্তির মাধ্যমে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুনর্বহাল হয়েছেন। এর জের ধরেই একসঙ্গে পদত্যাগ করেছেন হামদুকের মন্ত্রিসভার ১২ মন্ত্রী।

গত মাসে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী আবদাল্লাহ হামদুক।

রবিবার (২১ নভেম্বর) সামরিক কাউন্সিলের সঙ্গে রাজনৈতিক চুক্তির প্রতিবাদে তারা একসঙ্গে পদত্যাগ করেন। কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চুক্তির পর প্রধানমন্ত্রীর পদে ফেরা আবদাল্লাহ হামদুকের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তারা। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় দুইপক্ষের মধ্যে হওয়া এই চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে। যদিও সুদানের রাজনৈতিক শক্তিগুলো এই চুক্তিকে প্রত্যাখ্যান করেছে।

তারা জানিয়েছেন, এটি সামরিক অভ্যুত্থানকে বৈধতা দেওয়ার চেষ্টা। মঙ্গলবার তারা মন্ত্রীসভার বৈঠকেও অংশ নেননি। তবে কী কারণে তারা পদত্যাগ করেছেন সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো ব্যাখ্যা দেননি।

যে মন্ত্রীরা পদত্যাগ করেছেন তারা হামদুকের নেতৃত্বাধীন অন্তর্বর্তীকালীন সরকারে ছিলেন, অক্টোবরের ২৫ তারিখে ওই সরকার ভেঙে দেন আল-বুরহান। সুদানের সামরিক বাহিনীর প্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহানের নেতৃত্বে এই ক্ষমতা দখলের পর থেকেই দেশটির হাজার হাজার নাগরিক প্রায় প্রতিদিনই বিক্ষোভ করে আসছিলেন। এতে প্রায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়।

পদত্যাগ করা মন্ত্রীদের ভেতর পররাষ্ট্র, বিচার, কৃষি, সেচ, বিনিয়োগ ও জ্বালানি-মন্ত্রী রয়েছেন। মন্ত্রণালয়গুলোর পাঠানো বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। শিক্ষা, শ্রম, পরিবহণ, স্বাস্থ্য, যুব ও ধর্মবিষয়ক মন্ত্রীরাও পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

দীর্ঘদিন সুদানের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা ওমর আল-বশিরকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয় ২০১৯ সালে। এরপর সামরিক ও বেসামরিকদের সমন্বয়ে অন্তর্বর্তীকালীন একটি সরকার গঠিত হয়। গত মাসে অভ্যুত্থানের পর গৃহবন্দি করা হয় হামদুককে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে