টাচ নিউজ ডেস্কঃ অস্ট্রেলিয়ার নর্থ সাউথ ওয়েলস অঙ্গরাজ্যে এক হাজার জনের বেশি মানুষকে করোনা টেস্টের ভুল তথ্য পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে। সিডনির সেন্ট ভিনসেন্ট হাসপাতালে ঘটেছে এমন ঘটনা।

স্থানীয় সময় সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) কর্তৃপক্ষ জানায়, ২৩ থেকে ২৪ ডিসেম্বর যাদের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তাদের মধ্যে ৯৯৫ জনকে পূর্বেই করোনা নেগেটিভ রিপোর্টের তথ্য পাঠানো হয়। তাদের করোনা টেস্টের ফলাফল যেখানে এখনও শনাক্ত করা হয়নি।

হাসপাতালের প্যাথলজি ইউনিট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে, তারা এর সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। এ ঘটনার খবর পাওয়া গেলো যখন এর আগে ক্রিসমাস ডে-তে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চারশ করোনা পজিটিভ মানুষকে এসএমএসের বার্তা দিয়ে জানায় তাদের টেস্টর রিপোর্ট নেগেটিভ। দ্রুত এ ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে তারা আরও ৯৯৫ জনকে এ বার্তা পাঠানোর বিষয়টি জানতে পারেন।

তবে এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং ক্ষমা চেয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তারা এটি ভুলবশত হয়েছে বলে উল্লেখ করে ভবিষ্যতে এমনটি ঘটবে না বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এদিকে, অস্ট্রেলিয়ায় প্রথমবারের মতো ওমিক্রনের আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ওমিক্রন ঠেকাতে কোনো কোনো রাজ্যে পুনরায় বিধিনিষেধ চালু করেছে দেশটি।

গত ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে প্রথম বি.১.১.৫২৯, করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্তের খবর আসে। নতুন এই ধরনের নমুনা সংগ্রহ করা হয় গত ৯ নভেম্বর। বর্তমানে বিশ্বের দুই শতাধিক দেশে ছড়িয়েছে ওমিক্রন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনার নতুন ধরনকে উদ্বেগজনক বলছে এবং বারবার বিশ্ববাসীকে সতর্ক করছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে