টাচ নিউজ ডেস্কঃ দেশে মহামারি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজের আওতায় এসেছেন ১১ কোটি ৫১ লাখ ৪৬ হাজার ৬৭৭ জন মানুষ। যা টিকা প্রয়োগে টার্গেট করা জনসংখ্যার প্রায় ৯৭ শতাংশ এবং দেশের মোট জনসংখ্যার ৬৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো কোভিড-১৯-এর টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

অধিদফতর থেকে জানানো হয়, দেশে টিকা কার্যক্রমের শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজের আওতায় এসেছেন ১২ কোটি ৮২ লাখ ৪৫ হাজার ৪৬৫ জন। এছাড়া দুই ডোজ টিকা পেয়েছেন ১১ কোটি ৫১ লাখ ৪৬ হাজার ৬৭৭ জন। আর বুস্টার ডোজ নিয়েছেন এক কোটি আট লাখ ৩৫ হাজার ৬৯৪ জন মানুষ।

গত ১ নভেম্বর থেকে বাংলাদেশে ১২-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। এদের মধ্যে এ পর্যন্ত এক কোটি ৭২ লাখ ৯৮ হাজার ৩২ জনকে প্রথম ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। আর দ্বিতীয় ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছেন এক কোটি ৫৭ লাখ ৬৪ হাজার ৪৪৩ জন। যদিও প্রথম ডোজ পাওয়াদের মধ্যে এখনো দ্বিতীয় ডোজ টিকা পাননি ১৫ লাখ ৩৩ হাজার ৫৮৯ জন শিক্ষার্থী।

এ দিকে সোমবার (১১ এপ্রিল) সারাদেশে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে চার হাজার ৯২৮ জন শিক্ষার্থীকে। আর দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগ করা হয়েছে ১১ হাজার ৬৮৭ জনের শিক্ষার্থীর শরীরে।

অধিদফতর বলছে, দেশে এ পর্যন্ত দুই লাখ ১২ হাজার ৬৯১ জন ভাসমান জনগোষ্ঠী ভ্যাকসিনের আওতায় এসেছেন। এদেরকে জনসন অ্যান্ড জনসনের সিঙ্গেল ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে