টাচ নিউজ ডেস্কঃ দুদকের করা চারটি মামলায়ই জামিন পেয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাবেক সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। দীর্ঘদিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সিসিউতে কারারক্ষীদের কঠোর পাহারায় চিকিৎসাধীন থাকার পর গতকাল কারামুক্ত হয়েছেন তিনি, সরিয়ে নেওয়া হয়েছে কারারক্ষীদের।

তবে চিকিৎসকরা বলছেন, সম্রাটকে হাইলি ইকুইপমেন্ট আছে এমন জায়গায় নিয়ে যাওয়া ভালো। তার আরো উন্নত চিকিৎসা দরকার। এখন বাকি চিকিৎসা দেশে হবে নাকি বিদেশে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া সময়।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নজরুল ইসলাম বলেন, দেড় বছর ধরে এখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। সম্রাটের ৩১-৩৩% হার্টের ফাংশনাল ছিল। নজরুল ইসলাম আরও বলেন, গতকাল বুধবার পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে প্রশাসন কিংবা কারা কর্তৃপক্ষের কেউ যোগাযোগ করেননি। আজ সকালে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে। ওনাকে ছাড়া যাবে কিনা দায়িত্বরত চিকিৎসকেরা বলতে পারবেন। স্বজনরা চাইলে অন্য কোথাও চিকিৎসা নিতে পারেন।

বিএসএমএমইউ-র সহযোগী অধ্যাপক ডা মো. রায়হান মাসুম মন্ডল আরও বলেন, উনি যতদিন জেল কর্তৃপক্ষের অধীনে ছিলেন আমরা জেল কর্তৃপক্ষকে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে অবগত করেছি। এখন যেহেতু তিনি জামিনে মুক্ত আছেন আমরা এখন তার পরিবারকে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানাবো। সোমবার আমরা একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে তার শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা করবো। তার অভিভাবক সিদ্ধান্ত নিবেন যে তিনি চিকিৎসা কোথায় পাবেন।

কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা হারিসুল হক বলেন, দেড় বছর আগে আমরা যখন তার এনজিওগ্রাম করলাম তারপর বেডে নেওয়ার পর তিনি শকে চলে গেলেন। আমরা ইনজেকশন দিয়ে তার প্রেসার উঠানোর ব্যবস্থা করলাম। তার হার্টে মেটালিক ভাল্ব আছে। তাকে তখন তিনটি দামি ইনজেকশন দেওয়ার পর আমাদের মাঝে আবার ফিরে আসলেন। এরপর আবার তার এনিমিয়া ফিরে আসলো।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএসএমএমইউ হাসপাতালের অতিরিক্ত পরিচালক ডা. পবিত্র কুমার দেবনাথ, সহযোগী অধ্যাপক ডা. আরিফুল ইসলাম জোয়ারদার টিটো, সহকরী পরিচালক ডা. এহসানুল কবির, ডা. এনায়েত তুষার, ডা. মোহাম্মদ কুতুব উদ্দিন প্রমুখ।

এর আগে বুধবার (১১ মে) অস্ত্র, অর্থ পাচার ও মাদক মামলার পর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় জামিন পান ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাবেক সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ -এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান তাকে জামিন দেন। পরে বিকেলে ছাড়া পান তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে