টাচ নিউজ ডেস্ক: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সিরিঞ্জ দিয়ে নিজের শরীরে বিষ প্রয়োগ করে সুমন গাজী (২৩) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। সুমন উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের তুলাতলী গ্রামের সিদ্দিক গাজীর ছেলে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ৯টায় কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মৃত সুমনের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে সুমনের সঙ্গে ধুলাসার ইউনিয়নের চাপলী গ্রামের ইউসুফের মেয়ে সাদিয়ার বিয়ে হয়। ছয় মাস যাবৎ সুমনের শ্বশুরবাড়ির সঙ্গে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিল। এনিয়ে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার সালিশ মিমাংসাও হয়েছে।

দুই মাস আগে তাদের একটি কন্যা সন্তান হয়। ১৫ দিন আগে সুমন তার শ্বশুরবাড়ি থেকে সন্তানকে নিয়ে আসতে চাইলে শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে মারধর ধরে। এতে সুমন মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে তিনদিন আগে সিরিঞ্জ দিয়ে নিজের পায়ে বিষ প্রয়োগ করেন। মঙ্গলবার সুমন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে বিকালের দিকে তাকে স্বজনরা হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে রাত ৯টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. মাহমুদুর রহমান জানান, আমরা তাকে পর্যাপ্ত চিকিৎসা প্রদান করেছি। চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে তার মৃত্যু হয়।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম জানান, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে