টাচ নিউজ ডেস্কঃ আগামী সপ্তাহেই দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পুরোদমে ক্লাস শুরুর ঘোষণা আসতে পারে। এমনটাই জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) সকালে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, করোনার কারণে গত ২ বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। এই পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা পড়াশোনায় অনেকটা পিছিয়ে গেছে। তাদের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি। সেজন্য দ্রুত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, আমরা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় আছি। অনুমোদন পেলেই আশা করছি সামনের সপ্তাহ থেকে স্কুল-কলেজে স্বাভাবিক ক্লাস শুরুর ঘোষণা দিতে পারব।

প্রায় সব শিক্ষার্থীরা করোনার প্রথম ডোজের টিকা পেয়েছে উল্লেখ করে নেহাল আহমেদ আরও বলেন, যারা বাকি আছে, তাদেরকেও টিকার আওতায় আনা হবে। ইতোমধ্যে দ্বিতীয় ডোজের আওতায় এসেছে ১ কোটি ৫ লাখ শিক্ষার্থী। যারা এখনও টিকা পাননি, আশা করছি তাদেরও সামনের সপ্তাহের মধ্যে টিকার আওতায় আনা সম্ভব হবে।

এ দিকে, বুধবার (২ মার্চ) ঢাকা কলেজের একাদশ শ্রেণির নবীণ বরণ অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি শিগগিরই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর কথা বলেছেন। একই দিন জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডে এক অনুষ্ঠানে তিনি চলতি এবং আগামী শিক্ষাবর্ষ মিলিয়ে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে বলেও জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, বুধবার থেকে শুরু হয়েছে একাদশ শ্রেণির ক্লাস। একই দিনে স্বাভাবিক শ্রেণি কার্যক্রমে ফিরেছে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা। আগামী ২০ মার্চ থেকে শুরু হবে প্রাক-প্রাথমিকের ক্লাস।

এছাড়া গত ২২ ফেব্রুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর এসএসসি পরীক্ষার্থীদের সপ্তাহে ৪টি এবং দশম শ্রেণিতে ৩টি বিষয়ে ক্লাস হচ্ছে। অষ্টম ও নবম শ্রেণিতে সপ্তাহে ২ দিন ৩ বিষয়ে এবং ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে ১ দিন ৩ বিষয়ের ক্লাস হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে