টাচ নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের ফারহানা রহমান নামের এক শিক্ষার্থীকে প্রকাশ্যে ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে রাজধানীর বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা।

হাফ পাস দেওয়া নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে ঠিকানা এক্সপ্রেস লিমিটেডের বাস স্টাফ এ ধরনের আচোরণ করেছে বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের।

রবিবার (২১ নভেম্বর) চানখারপুর এলাকায় কলেজের সামনের সড়কটি অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। সকাল ৯টার দিকে তারা সড়ক বন্ধ করে দেওয়ার পর কলেজ প্রশাসন শিক্ষার্থীদের ভেতরে নিয়ে তালাবন্ধ করে দেয়। এরপর ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তালা ভেঙে পুনরায় সড়ক অবরোধ করে।

বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বর্তমানে ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি বিরাজ করছে। শিক্ষকদের বাধার মুখে অনেক শিক্ষার্থী ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণ ছেড়ে এখনো রাজপথে বের হতে পারেনি। তবে বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে, তারা তাদের দাবি আদায়ে অনড়। তারা এই ঘটনার বিচার চায়।

এ বিষয়ে বদরুন্নেসা সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সাবিকুন নাহার বলেন, কলেজের একজন শিক্ষক ফোনে আমাকে ছাত্রী হেনস্তার বিষয়টি জানিয়েছেন। তারা কলেজ প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগও দিয়েছে। আমরা চাইনা তারা ঝামেলা করুক। আমরা ঠিকানা বাসের মালিককে আসতে বলেছি। এটা কলেজের কোনো ঝামেলা না। বাইরের বিষয়। আমরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি। শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন। বাইরে থেকে কেউ আমাদের কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রভাবিত করছে বলে ধারণা করছি।

চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল কাইয়ুম বলেন, ছাত্রী হেনস্তার বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। এ বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করেনি। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

শিক্ষার্থীরা দাবি, কলেজের এক শিক্ষার্থী ঠিকানা এক্সপ্রেস লিমিটেডের বাসে হাফ ভাড়া দিতে চাওয়ায় ওই গাড়ির হেলপার বাস থেকে নামার সময় তাকে ধর্ষণের হুমকি দেয়। তবে বাসটি দ্রুত চলে যাওয়ায় সে ওই গাড়ির হেলপারের নাম জানতে বা গাড়ির নম্বর লিখে নিতে পারেনি।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি- ১. স্টুডেন্টদের বাসে হাফ পাস নিশ্চিত করতে হবে, ২. স্টুডেন্টদের সাথে খারাপ ব্যবহার করা যাবে না, ৩. কলেজের সামনে সুন্দরমতো গাড়ি থামাতে হবে, ৪. স্টুডেন্টদের সম্মান সহকারে বাসে উঠাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে