টাচ নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় সঠিক তদন্ত করে দোষীদের বিচার দাবি ও দুর্ঘটনা রোধে এনালগ প্রযুক্তি ছেড়ে রেলে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের দাবি জানিয়েছে যাত্রী অধিকার আন্দোলন।

এক বিবৃতিতে যাত্রী অধিকার আন্দোলনের আহ্বায়ক কেফায়েত শাকিল বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেন দুর্ঘটনা যাত্রী অধিকার আন্দোলন গভীর ভাবে শোকাহত। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জন নিহত ও বেশ সংখ্যক আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিনি গভীর শোক প্রকাশ করে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। নিহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও আহতদের দ্রুত আরোগ্য লাভে সরকারের যথাযথ পদক্ষেপের মাধ্যমে উন্নত চিকিৎসার দাবি জানান তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ দিনকে দিন উন্নয়ন ঘটাচ্ছে। দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। প্রযুক্তির ছোয়া দেশের প্রতিটি সেক্টরে লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সে দিক থেকে রেল খুব বেশি প্রযুক্তি সম্পন্ন হতে পারছে না। কসবায় যে দুর্ঘটনা ঘটেছে, মিডিয়ার তথ্য মতে সিগনাল অমান্য করায় এই দুর্ঘটনার কারণ। ফলে ঝরে পড়েছে এতগুলো তাজা প্রাণ। প্রযুক্তির এ যুগে রেল এখনো এনালগ পদ্ধতিতে চলছে। দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা দেখা দিলে রেল নিজে স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থায় যেতে পারে না। অথচ ডিজিটাল ব্যবস্থায় রেলের অটো সিগনালিং পদ্ধতি চালু খুব কঠিন নয়। এসব প্রযুক্তি দ্রুত রেল সেবায় যুক্ত করার আহবান জানান তিনি।

বিবৃতিতে কেফায়েত শাকিল দাবি করে বলেন, রেলের দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৫টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। দেশের অন্য তদন্ত কমিটির মত তদন্ত রিপোর্ট যেন কোন অজানা কারণে আটকে না থাকে। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের শাস্তির দাবি করেন যাত্রী অধিকার আন্দোলনের আহবায়ক।

বার্তা প্রেরক
মাহমুদুল হাসান
মুখপাত্র, যাত্রী অধিকার আন্দোলন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে