টাচ নিউজ ডেস্ক: ফরাসি তারকা কিলিয়ান এমবাপের জোড়া গোলে বায়ার্ন মিউনিখের বিরুদ্ধে রুদ্ধশ্বাস লড়াই জিতে নিল পিএসজি। গতকাল বুধবার (৭ এপ্রিল) রাতে মিউনিখে বরফ বৃষ্টির মধ্যেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে বায়ার্নকে ৩-২ হারায় ফরাসি দলটি। অ্যাওয়ে ম্যাচ জিতে সেমিফাইনালের পথে এক পা এগিয়ে গেল পিএসজি।

৭ মাস আগে এই বায়ার্নের বিরুদ্ধে হেরে স্বপ্ন ভেঙেছিল পিএসজির। সেই বায়ার্ন মিউনিখকে পেয়ে জ্বলে ওঠেন এমবাপে ও নেইমাররা। দুই তারকা ফরোয়ার্ডের নৈপুণ্যে জার্মান দলটিকে তাদের মাঠেই হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে ওঠার পথে এগিয়ে গেল পিএসজি। আলিয়াঞ্জ এরিনায় রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে পিএসজিকে জয় এনে দেন এমবাপের জোড়া গোল। আগামী মঙ্গলবার ঘরের মাঠে ফিরতি লেগ ড্র করলেই সেমিফাইনালের টিকিট হাতে পেয়ে যাবে ফরাসি দলটি।

এদিন, ম্যাচের প্রথম আধ ঘণ্টাতেই এমবাপে ও মার্কিনিয়োসের গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। তবে দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পর ঘুরে দাঁড়ায় গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। চৌপো-মোটিং ব্যবধান কমানোর পর বায়ার্নকে সমতা ফেরান টমাস মুলার। কিন্তু এমবাপের দ্বিতীয় গোলে জয় নিশ্চিত করে ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা। সেই সঙ্গে দুই বছরের বেশি সময় পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হারল বায়ার্ন। একই সঙ্গে কোচ হ্যান্সি ফ্লিকের বায়ার্নের কোচ হিসেবে এটাই প্রথম হার। তার কোচিংয়ে গত বছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা ১৬ ম্যাচ জিতেছিল বায়ার্ন মিউনিখ।
গত বছর আগস্টে ২০১৯-২০ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে পিএসজিকে ১-০ হারিয়ে খেতাব জিতেছিল বায়ার্ন। ভঙ্গ হৃদয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন পিএসজি খেলোয়াড়রা। এদিন তারই প্রতিশোধ নিতে মাঠে নামেন এমবাপে-নেইমাররা। মিশনে এক ধাপ এগিয়ে গেল পিএসজি।

শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বার্সেলোনার মাঠে হ্যাটট্রিক করে পার্থক্য গড়ে দিয়েছিলেন এমবাপে। আর শেষ আটের প্রথম লেগে গতবারের চ্যাম্পিয়ন বায়ার্নের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জোড়া গোল করে দলকে জেতান তিনি। এমবাপের দু’টি গোলেই অবদান রাখেন নেইমার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে