নরসিংদী প্রতিনিধিঃ নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার মির্জারচরে আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ববিরোধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন দুই পক্ষের আরও অন্তত আটজন। আজ রোববার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মির্জারচর ইউনিয়নের মির্জারচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই যুবকের নাম মো. রুবেল মিয়া (২৭)। তিনি উপজেলার মির্জারচর গ্রামের মানিক ব্যাপারীর ছেলে।

এলাকার কয়েক বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার শুরু রায়পুরার বাঁশগাড়ী ইউনিয়ন থেকে। গত ১১ নভেম্বর বাঁশগাড়ী ইউপি নির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছিল নৌকার প্রার্থী মো. আশরাফুল হক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রাতুল হাসান জাকিরের মধ্যে। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ দুজনের ওই এলাকায় বিরোধ দীর্ঘদিনের। ওই নির্বাচনের দিন ভোরে নির্বাচনী সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ হয়ে তিন ব্যক্তির মৃত্যু হয়।

রক্তক্ষয়ী ওই নির্বাচনে ভোটের ফলাফলে বিজয়ী হন স্বতন্ত্র প্রার্থী রাতুল হাসান। এর পরপরই আশরাফুলের কর্মী-সমর্থকেরা আতঙ্কে এলাকা ছাড়েন। তবে নির্বাচিত হওয়ার কয়েক দিন পরই রাজধানী ঢাকা থেকে রাতুল হাসান পুলিশের হাতে অস্ত্রসহ আটক হন। ওই মামলায় কিছুদিন জেল খেটে বর্তমানে তিনি জামিন পেয়ে এলাকায় আছেন।

আড়াই মাস পর আজ রোববার সকালে মো. আশরাফুল হকের কর্মী-সমর্থকেরা এলাকায় ঢোকেন। বাধা দিতে এলে রাতুল হাসানের কর্মী-সমর্থকদের ধাওয়া দেন তাঁরা। ধাওয়া খেয়ে পার্শ্ববর্তী মির্জারচর ইউনিয়নের মির্জারচর এলাকায় আশ্রয় নেন রাতুল হাসানের কর্মী-সমর্থকেরা। পরে দুপুর ১২টার দিকে আশরাফুল হকের কর্মী-সমর্থকেরা মির্জারচর গিয়ে দেশীয় অস্ত্র ও টেঁটা নিয়ে তাঁদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষের সময় রুবেল মিয়া নামের ওই যুবকের মৃত্যু হয়। এ সময় দুই পক্ষের অন্তত আটজন আহত হন।

রুবেল কার সমর্থক এবং কোন অস্ত্রের আঘাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, তা এখনো পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে তাঁর লাশ নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন রায়পুরা থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আতাউর রহমান। অন্যদিকে সংঘর্ষে আহত ব্যক্তিদের নরসিংদী সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান বলেন, ‘বাঁশগাড়ীর ঘটনায় মির্জারচরে সংঘর্ষের সময় একজন নিহত হয়েছেন বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত আটজন। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে ওই এলাকার পরিস্থিতি পুলিশের সম্পূর্ণ নিয় ন্ত্রণে আছে।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে