টাচ নিউজ ডেস্কঃ ইউক্রেনে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ এর কারণে মস্কোর সঙ্গে ‘শত্রুসুলভ আচরণ’ করা দেশের তালিকা করেছে রাশিয়া। এখন থেকে এসব দেশের কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে রাশিয়ার কেউ লেনদেন করতে চাইলে আগে রুশ সরকারের অনুমতি নিতে হবে। খবর আল জাজিরার।

সোমবার (৭ মার্চ) মস্কো জানিয়েছে, ইউক্রেন সংঘাতের জেরে রাশিয়ার ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা দেওয়া ‘শত্রু’ দেশ ও অঞ্চলের একটি তালিকা অনুমোদন করেছে তারা।

তালিকায় নাম রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৭ সদস্য, যুক্তরাজ্য (জার্সি, অ্যাঙ্গুইলা, ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ, জিব্রাল্টারসহ), ইউক্রেন, মন্টেনিগ্রো, সুইজারল্যান্ড, আলবেনিয়া, অ্যান্ডোরা, আইসল্যান্ড, লিখেনস্টেইন, মোনাকো, নরওয়ে, সান মারিনো, নর্থ মেসিডোনিয়া, অস্ট্রেলিয়া, মাইক্রোনেশিয়া ও নিউজিল্যান্ডের।

এছাড়া এশিয়ার মধ্যে রাশিয়ার ‘শত্রু’ দেশের তালিকায় নাম এসেছে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর ও তাইওয়ানের (চীনের একটি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিবেচিত)।

এর আগে, গত ৫ মার্চ রুশ প্রেসিডেন্টের এক আদেশে রাশিয়া সরকার, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও নাগরিকদের তালিকাভুক্ত ‘শত্রু’ দেশের ঋণদাতাদের কাছ থেকে নেওয়া ঋণ রুশ মুদ্রা রুবলে পরিশোধের নির্দেশ দেওয়া হয়।

এভাবে অর্থ পরিশোধের জন্য ঋণগ্রহীতাদের রাশিয়ার কোনো ব্যাংকে বিশেষ ধরনের রুবল অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে এবং অর্থপ্রদানের দিন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অফিসিয়াল বিনিময় হার অনুসারে বকেয়া বৈদেশিক মুদ্রার সমপরিমাণ রুবল স্থানান্তর করতে হবে।

বিদেশি ঋণ পরিশোধের এই অস্থায়ী ব্যবস্থা মাসে এক কোটি রুবলের (৭৬ হাজার মার্কিন ডলার) বেশি অর্থপ্রদানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে