ফজলুল হক: অনেক না বলা কথা, না বলার ইচ্ছে সেত্ত্বও বেহায়ার মত বলতে হচ্ছে, বাংলা দেশের কিছু বেহায়া চোর বাটপার অতি লোভী রাজনীতিবিদ নামের কলঙ্ক তাদের বিরোদ্বে। রাজনীতি হল সবচেয়ে বড়নীতি, আর বড় উচ্চ শিক্ষিত লোকেরাই রাজনীতি বিষয়ে পড়তো এবং রাজনীতি করতো, আর তাদের সম্মান ও ছিল।

আর এখন রিক্সা চালকহতে আরম্ভ করে সব চোর চোট্টা বাটপার, জুয়াখোর,মজদুর, পেটে পারা দিলে রাজনীতির সংঙ্গা কি মুখ থেকে বের হবেনা তারাও নেতা, পেতি নেতা তেনা নেতার কোন অভাব নেই কারন এরা পেটের দায়ে রাজনীতি করে, বড় নেতারা টাকা দিয়ে তাদেরকে ব্যবহার করে। প্রাইমারি পাশ না তারাও ইউনিয়ন পর্যায়ের আওয়ামীলিগের সভাপতি বা president,অথচ সে president বানান লিখতে ভুল করবে।

এখন আমরা সাধারণ মধ্যম শিক্ষিত লোকেরা যাব কোথায় ? দলই তার নিজের দলকে ডাস্টবিন ফেলছে, সাধারণ একজন পেতি নেতা দুই শত কোটি টাকার মালিক, ভাবতেও অবাক লাগে, সরকারের কাছে অনুরোধ, এই পেতি নেতাদের ঠেকান নাহয় দেশ ও দলের বিপর্যয় নেমে আসবে,তখন আর দলকে বাঁচানো যাবে না।

লেখক: বিশিষ্ট সমাজসেবী, এডভোকেট মোঃ ফজলুল হক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে