টাচ নিউজ ডেস্ক: ঢাকায় বর্তমানে চলাচলরত বাস-মিনিবাসের ৯৫ শতাংশই জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করে সিএনজি। অন্যদিকে ডিজেলের দাম বাড়ানোর পরিপ্রেক্ষিতে ভাড়া প্রায় ২৭ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

নতুন এ ভাড়া শুধু ডিজেলচালিত বাসের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হওয়ার কথা বলছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। তবে ডিজেল আর সিএনজিতে চলাচল করা বাসগুলো কীভাবে আলাদাভাবে শনাক্ত করা হবে, তার স্পষ্ট কোনো ব্যাখ্যা দিতে পারেননি বিআরটিএর কর্মকর্তারা।

পরিবহন মালিক-শ্রমিক সংগঠনগুলোর হিসাবে ঢাকায় বর্তমানে চলাচলরত বাস-মিনিবাসের সংখ্যা কম-বেশি পাঁচ হাজার। পরিবহন-সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এর মাধ্যমে সিএনজিচালিত সব বাস নতুন ভাড়া কার্যকরের সুযোগ পেতে যাচ্ছে।

জ্বালানি তেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোয় মালিকদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল বিআরটিএ কার‍্যালয়ে ‘যাত্রীবাহী মোটরযানের ভাড়া পুনর্নির্ধারণী কমিটি’র এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরের বাস ভাড়া ২৬ দশমিক ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। নতুন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে যাত্রীপ্রতি কিলোমিটারের জন্য ২ টাকা ১৫ পয়সা। অন্যদিকে মিনিবাসের ভাড়া ২৮ দশমিক ১২ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। মিনিবাসের নতুন ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ২ টাকা ৫ পয়সা।

বাসের সর্বনিম্ন ১০ টাকা ও মিনিবাসের সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৮ টাকা। অন্যদিকে দূরপাল্লার বাসের ভাড়া ২৭ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। দূরপাল্লার রুটে প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ১ টাকা ৮০ পয়সা।

গতকাল রাতেই ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বিআরটিএ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে