টাচ নিউজে ডেস্কঃ পবিত্র রমজান শুরুর আগেই নাগালের বাইরে চলে গেছে সব ধরনের মুরগির দাম। সোনালি কিংবা দেশি সব জাতের মুরগির দাম কেজি প্রতি বেড়েছে ১০ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত।

রোস্ট সাইজের সোনালি মুরগি কেজি প্রতি ২৯০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সোনালি জাতের একটু বড় মুরগির কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ৩২০-৩৩০ টাকায়।

আর ব্রয়লার মুরগি কেজিপ্রতি ১৬০-১৭০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহে যা বিক্রি হয়েছে ১৫০-১৬০ টাকায়। লেয়ার মুরগি ২৫০-২৬০ টাকা এবং দেশি মুরগি কেজি প্রতি ৫৩০-৫৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) বিকেলে রাজধানীর কারওয়ান বাজার, মধুবাগ ও মগবাজারসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে এ তথ্য জানা গেছে।

বড় মগবাজারের মুরগি বিক্রেতা জুয়েল বলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই মুরগির দাম বেশ চড়া। বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান বেড়ে যাওয়ায় ও রোজা উপলক্ষে মানুষের কেনাকাটা বৃদ্ধির কারণে মুরগির দাম বেড়েছে। পাইকাররা বলেছেন চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম।

অন্যদিকে গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৬৪০-৬৫০ টাকায় এবং খাসির মাংস কেজিপ্রতি ৯০০-১০০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

তবে কমতে শুরু করেছে ডিমের দাম। ৫ থেকে ১০ টাকা কমে প্রতি ডজন ডিম বিক্রি হচ্ছে ১০০-১১০ টাকায়। যা কিছুদিন আগেও যা ছিল ১১৫-১২০ টাকা।

রমজান উপলক্ষে বেড়েছে মুড়ির দাম। প্রতি কেজি মুড়ি বিক্রি হচ্ছে ৭৫ থেকে ৮০ টাকায়। কিছুদিন আগেও যা বিক্রি হয় ৬৫ থেকে ৭০ টাকায়।

অন্যদিকে রমজানের অতি প্রয়োজনীয় ছোলা ৭৫-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। যা এক মাস আগে ৭০-৭৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। অন্যদিকে মান ও বাজারভেদে বেসন বিক্রি হচ্ছে ৭০-১০০ টাকায়।

জানতে চাইলে মধুবাগ বাজারের ক্রেতা রাব্বি বলেন, নিত্যপণ্যের বাজারের বিষয়ে নতুন করে কী আর বলব। তেল, চিনি, ডাল থেকে শুরু করে সবকিছুর দাম আগেই বাড়তি। আর রমজান উপলক্ষে আরেক দফা বেড়েছে। আমাদের মতো নিম্নবিত্তের জন্য টিকে থাকা দায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে