টাচ নিউজ ডেস্কঃ ভারতের রাজস্থানে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের শিকার আপন তিন বোন দুই সন্তানসহ আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার তাদের মরদেহ বাড়ির পাশে একটি কুয়া থেকে উদ্ধার করা হয়। খবর এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, গত বুধবার থেকে দুই সন্তানসহ নিখোঁজ ছিলেন আত্মহত্যাকারী তিন বোন। রাজস্থানের দুদু জয়পুর জেলার চাপিয়া গ্রামে একই পরিবারের তিন ভাইয়ের সঙ্গে তাদের বিয়ে হয়েছিল।

নিহতদের নাম কালু মিনা (২৫), মমতা (২৩) এবং কমলেশ (২০), হারসিত ও তার বোন। হারসিত ও তার বোনের (২৭ দিনের নবজাতক) মা কালু। মমতা ও কমলেশ অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।
তাদের আত্মহত্যার কারণ যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন। বিয়ের পর থেকেই তিন বোন তাদের শ্বশুরবাড়ির লোকজনের হাতে নির্যাতিত হয়ে আসছিলেন।

শনিবার সন্তানসহ তিন বোনের মরদেহ উদ্ধারের পর তাদের স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহতদের পরিবারের অভিযোগ, দুই সপ্তাহ আগেও নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন কালু। তার চোখে গুরুতর আঘাত লাগে। সম্প্রতি তিনি হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরেন। বিয়ে হলেও পড়াশোনার ব্যাপারে প্রবল আগ্রহ ছিল তিন বোনের। কালু স্নাতক চূড়ান্ত বর্ষে পড়তেন, মমতা রাজ্য পুলিশের পরীক্ষায় পাস করেছিলেন ও কমলেশ ভর্তি হয়েছিলেন এক কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে