টাচ নিউজ ডেস্ক: যশোরে প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার শিক্ষার্থীকে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হচ্ছে আগামীকাল। বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ কে এম গোলাম আযম।

সোমবার (১৫ নভেম্বর)। জেলার ২৪ হাজার এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে টিকাদানে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। বাকিদের পর্যায়ক্রমে টিকাদানের আওতায় আনা হচ্ছে।

যশোর প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউিট কেন্দ্রে (পিটিআই) ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা করোনাভাইরাসের টিকা নিতে পারবে। সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা বিভাগ।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ কে এম গোলাম আযম জানান, যশোর জেলায় ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী রয়েছে ২৪ হাজার। পাশাপাশি ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী ১ লাখ ৫ হাজারের বেশি শিক্ষার্থীকে করোনাভাইরাসের টিকার আওতায় আনা হয়েছে। তাদের টিকাদানের জন্য জেলায় একটি কেন্দ্র খোলা হয়েছে। যশোর প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট কেন্দ্রে (পিটিআই) এইচএসসি পরীক্ষার্থীর পাশাপাশি ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হবে।

এ কার্যক্রমের প্রথমে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। জেলায় একটিই টিকাদান কেন্দ্র নির্ধারণ করায় উপজেলা ও কলেজ ভিত্তিক শিক্ষার্থীদের টিকাদানের তালিকা ও শিডিউল তৈরি করা হয়েছে। সেই শিডিউল অনুযায়ী সোমবার (১৫ নভেম্বর) সদর উপজেলার এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের টিকাদান করা হবে। পর্যায়ক্রমে বাকি শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান করা হবে। টিকাদানের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানান, যাদের ১৭ ডিজিটের জন্মসনদ আছে, শুধু তারাই টিকা নিতে পারবে। শিক্ষা অফিস থেকে আমাদের তালিকা সরবরাহ করবে। সে অনুযায়ীই সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে টিকা ও স্বাস্থ্যকর্মী পাঠানো হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে