টাচ নিউজ ডেস্কঃ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) গত মার্চ মাসে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে সর্বমোট ১১৮ কোটি ১১ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রকারের চোরাচালান পণ্য সামগ্রী, অস্ত্র ও গোলাবারুদ এবং মাদকদ্রব্য জব্দ করতে সক্ষম হয়েছে।

জব্দকৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে ১৩,৪১,০২৩ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৫ কেজি ৪৪ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস, ৩ কেজি ৫১৩ গ্রাম হেরোইন, ১ কেজি ২৭৫ গ্রাম আফিম, ৩৮,৬৩৭ বোতল ফেনসিডিল, ১৭,৪৯২ বোতল বিদেশী মদ, ২,৫৯৫ ক্যান বিয়ার, ২,৭৪৪ কেজি গাঁজা, ৫৩,৩২২টি ইনজেকশন, ৪,৫৯১টি ইস্কাফ সিরাপ, ৭২১ বোতল এমকেডিল/কফিডিল, ১২,৪৬,৭৫৭টি বিভিন্ন প্রকার ঔষধ, ২১,৫০৫টি এ্যানেগ্রা/সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ৩,৭৪,৫৬৮টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

জব্দকৃত অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ১ কেজি ১৭৩ গ্রাম স্বর্ণ, ২০ কেজি ৩ গ্রাম রূপা, ৪,৩৫,৫৩০টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ২,৫১৩টি ইমিটেশন গহনা, ১১,৭৩০টি শাড়ী, ২,২১৩টি থ্রিপিস/শার্টপিস/চাদর/কম্বল, ১,৩৫৪টি তৈরী পোষাক, ৩,৪৯২ ঘনফুট কাঠ, ৯,৪২৪ কেজি চা পাতা, ৩৩,৯৩০ কেজি কয়লা, ১টি কষ্টি পাথরের মূর্তি, ৬টি ট্রাক/কাভার্ডভ্যান, ৪টি প্রাইভেটকার/মাইক্রোবাস, ৮টি পিকআপ, ৩৫টি সিএনজি/ইজিবাইক এবং ৭১টি মোটরসাইকেল।
উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ১টি পিস্তল, ২টি বন্দুক, ২টি গান, ১৬ রাউন্ড গুলি এবং ২টি ম্যাগাজিন।

এছাড়াও সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন প্রকার মাদক পাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩৭৪ জন চোরাচালানীকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ২৪২ জন বাংলাদেশী নাগরিক ও ৬ জন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে