টাচ নিউজ ডেস্কঃ লালমনিরহাটের সাপ্টিবাড়ী বাজারে মাংসে চর্বি দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে কসাইকে মাংস কাটার দা দিয়ে কুপিয়েছেন মো. হয়রত আলী (৪৪) নামে এক কলেজশিক্ষক। গুরুতর আহত অবস্থায় কসাই শহীদুল ইসলামকে (৩৩) লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি। এ ঘটনায় কসাইয়ের ভাই বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

শনিবার (১১ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আদিতমারী উপজেলার সাপ্টীবাড়ি বাজারে এই ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী বাজারে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গরুর মাংস কিনতে যান সাপ্টিবাড়ী কলেজের কৃষি শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক মো. হযরত আলী। এ সময় কসাই শহীদুল ইসলাম মাংসে এক টুকরো চর্বি দিয়ে দেন। এটা দেখে দুজনের কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

ঘটনার এক পর্যায়ে ওই কলেজশিক্ষক ক্ষিপ্ত হয়ে কসাইয়ের ধারালো দা দিয়ে তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এ সময় আহত কসাইকে বাজারের লোকজন উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

কসাই শহিদুলের বড় ভাই সিরাজুল ইসলাম জানান, আমার ভাইয়ের অবস্থা আশস্কাজনক। আদিতমারী থানা পুলিশকে বিষয়টি জানিয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছি। এখন আইনগত ব্যবস্থার দাবি জানাচ্ছি।

প্রভাষক হযরত আলী বলেন, চর্বি বেশি দেওয়া নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়েছে মাত্র। তবে তাকে দা দিয়ে কোপানোর বিষয়টি মিথ্যা। আমাকে হয়রানি করার জন্য নিজেই নিজেকে আহত করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোক্তারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আহত কসাইয়ের পরিবার থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে