টাচ নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশের উত্তরের জেলা গাইবান্ধার হোটেল শ্রমিক প্রবীর সরকারের ছেলে প্রতীক সরকার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য উত্তীর্ণ হওয়ার পর পিতার অস্বচ্ছলতায় তার ভর্তির অনিশ্চয়তা নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।হোটেলে চাকরি করে সংসার চালানো কষ্ট হয়ে পড়ে তারপরও মেডিক্যালের ভর্তি এত টাকা দিতে পারছে না।ভর্তি হওয়া অসম্ভব হয়ে পড়ছিল।

বিষয়টি, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটুর নজরে এলে তিনি তার স্বভাবসুলভ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। সুদূর গাইবান্ধার একটি ছেলের ভর্তির সকল খরচের দায়িত্ব তিনি গ্রহণ করেন। নিজের জেলা থেকে এতটা দূরে এসেও এই মানবিক সহায়তায় আপ্লুত মেধাবী প্রতীক সরকার।

প্রতীক সরকারের বাবা প্রবীর সরকার বলেন, আমি দিনমজুরের কাজ করে কোনো মতে সংসার চালাই। নিজে তো অভাবেব কারণে লেখাপড়া করতে পারিনি। এ কারণে আমার ইচ্ছা ছেলেকে লেখাপড়া করাব। অনেক কষ্ট করে সেই পরীক্ষার খরচ জোগার করি। আমার ছেলের ভর্তি পরীক্ষায় পাসও করে। তবে সেখানে ভর্তি হওয়ার মতো টাকা আমার কাছে ছিল না। অবশেষে মেয়র স্যার আমার ছেলের ভর্তির জন্য আর্থিক সহায়তা করেছেন। আমি খুবই খুশি। এখন আমার ছেলের স্বপ্ন পূরণ হবে। এলাকার লোকদের কাছে বলতে পারব আমার ছেলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে পড়ে।

এ বিষয়ে মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি অনুপম সাহার মাধ্যমে জানতে পারি প্রতীক সরকার নামের ছেলেটি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। তবে তার পারিবারিক অসচ্ছলতার কারণে ভর্তি হতে পারছে না , এরপর তাদের সঙ্গে কথা বলে তার ভর্তির জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে