টাচ নিউজ ডেস্কঃ ভয়াবহ বন্যার কবলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়ার সাতটি রাজ্য। দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা বলছে, এরই মধ্যে বন্যায় প্লাবিত হয়ে এক লাখ ২৫ হাজারের বেশি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। গত রবিবার ও সোমবারও কয়েক হাজার মানুষকে ইতোমধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বিবৃতির মাধ্যমে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা বলছে, কেলানতান, পাহাং, তেরেঙ্গানু, জোহর, নেগেরি, মালাক্কা, সেমবিলান এবং সাবাহে অঞ্চলে এখন পর্যন্ত বন্যার পানি নেমে যায়নি। এসব এলাকার আট হাজার ৭২৭ জন এখনো বিভিন্ন কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়ে আছেন।

বন্যার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত মোট এক লাখ ২৫ হাজার জনকে বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে দেওয়া হলেও এর মধ্যে এক লাখ ১৭ হাজার ৭০০ জন আবার নিজ বাড়িতে ফিরে গেছেন।

প্রতি বছর বর্ষার মৌসুমে অক্টোবর থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত দেশটির পূর্ব উপকূলে বন্যা একটি স্বাভাবিক ঘটনা। যদিও গত ডিসেম্বর মাসের ১৭ তারিখ থেকে শুরু হওয়া অস্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের কারণে হাজারো মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে হয়।

টুইট বার্তার মাধ্যমে মালয় পুলিশের পক্ষ থেকে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, চলমান বন্যায় এখন পর্যন্ত ৫০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। আর নিখোঁজ রয়েছেন আরও দুজন।

টানা দুই সপ্তাহ আগে প্রথম দফা বন্যার পরে উদ্ধার তৎপরতায় ঢিলেমি ছিল বলে অভিযোগ এনেছেন দেশটির বিরোধীদলীয় আইনপ্রণেতারা।

বন্যার পানিতে দুদিন আটকে থাকা এক ব্যক্তি বলেন, সরকারের দিক থেকে কোনো সাহায্য আমরা এখনো পাইনি। যদিও ওই ব্যক্তিকে শেষ পর্যন্ত তার বন্ধুরা উদ্ধার করেন।

আবহাওয়া বিভাগ থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে। জানুয়ারির ২ থেকে ৫ তারিখের মধ্যে পশ্চিম উপকূলে জোয়ারের পানির উচ্চতাও বেশি থাকতে পারে বলে সতর্কবার্তা রয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ১০০ কোটি রিঙ্গিতের তহবিল রেখেছে মালয় সরকার।

এ দিকে জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে জাতীয় পরিকল্পনা প্রণয়নে মালয়েশিয়া জাতিসংঘের গ্রিন ক্লাইমেট তহবিল থেকে ৩ কোটি মার্কিন ডলার চায়। এ পরিকল্পনার ভেতরে পানি, কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা, জনস্বাস্থ্য, বনায়ন ও অবকাঠামোর মতো বিষয়গুলো থাকবে।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের কাছে যে তহবিল মালয়েশিয়ার কর্তৃপক্ষ চেয়েছে- সেটা দেশটি বন্যা ঠেকাতে যে পরিকল্পনা নিয়েছে সেখানেও ব্যয় হবে। যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আরও বেশি খরচ হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে