অনলাইন ডেস্ক: কাশ্মীর ইস্যুকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী দেশ ভারতের সঙ্গে পুরোপুরি যুদ্ধে সম্ভাবনা দেখছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এমনকি তিনি পরমাণু যুদ্ধের সম্ভাবনাকেও উড়িয়ে দিচ্ছেন না। তিনি আরো বলেন, জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ায় দিল্লির সঙ্গে আলোচনার কোনো প্রশ্নই আসে না।

স্থানীয় এক টিভি চ্যানেলে দেয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী ইমরান বলেন, ‘দু’টো পরমাণু শক্তিধর দেশ যখন লড়ে, সেই লড়াই যদি পুরোদস্তুর যুদ্ধ হয়, তা হলে প্রত্যেক মুহূর্তে এই সম্ভাবনা থাকে যে, সেটা পরমাণু যুদ্ধে গড়াবে।’

জাতিসংঘে আসন্ন সাধারণ অধিবেশনে নিজের বক্তৃতার আগে এই হুঁশিয়ারি দিয়ে ইমরান আসলে আন্তর্জাতিক মহলকে কাশ্মীর নিয়ে সক্রিয় হওয়ার জন্য চাপ দিলেন।

পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি ‘অবশ্যই’ মনে করেন, ভারত-পাক যুদ্ধের সম্ভাবনা রয়েছে এবং সেই বিপর্যয়ের প্রভাব ভারতীয় উপমহাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে যাবে। তাই তারা প্রতিটি আন্তর্জাতিক মঞ্চকে সক্রিয় হতে বলছেন।

তবে তিনি নয়াদিল্লির সঙ্গে কোনোরকম আলোচনায় বসতে অস্বীকৃতি জানান। এ বিষয়ে ইমরান খানের অভিযোগ, কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের মাধ্যমে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব লঙ্ঘন করে বেআইনিভাবে কাশ্মীরের ওপর ভাগ বসিয়েছে ভারত। ফলে তাদের সঙ্গে আপাতত আলোচনার প্রশ্ন নেই।

তবে ইমরান খান মনে করেন, ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ হলে পাকিস্তান হেরেও যেতে পারে। তবে তারা আমৃত্যু লড়াই করবেন বলেও তিনি জানান।

তার ভাষায়, ‘যদি পাকিস্তান ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামে এবং হেরে যেতে থাকে, তখন সামনে দু’টো রাস্তা থাকবে—আত্মসমর্পণ অথবা স্বাধীনতার জন্য আমৃত্যু লড়াই। আমি জানি, পাকিস্তানিরা দ্বিতীয়টাই করবে।’

সূত্র: আনন্দবাজার

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে