টাচ নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজলার বাদৈর ইউনিয়নের আলীনগর গ্রামে পশুর হাটে গরু রাখার জায়গা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে মো. শাহ আলম (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (১৭ জুলাই) রাত ১১টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। শাহ আলম কসবা উপজেলার শ্যামবাড়ি গ্রামের মো. ইউনুছ মিয়ার ছেলে।

কসবা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর ভূঁইয়া ও সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. মনির হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দুপুরে কসবা উপজেলার বাদৈর ইউনিয়নের আলীনগর গ্রামে অস্থায়ী পশুর হাট বসে। ওই হাটে গরু রাখার জায়গা নিয়ে শ্যামবাড়ি গ্রামের শাহ আলম ও আনোয়ার হোসেনের সাথে পার্শ্ববর্তী মান্দারপুর গ্রামের মাহবুব ও বায়েজিদের বাগবিতণ্ডা হয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন শাহ আলম। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে ও পরে কুমল্লিা মেডিক্যাল কলজে হাসপাতালে নেয়া হয়। পরবর্তীতে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলজে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান।

কসবা থানার ওসি মো. আলমগীর ভূইয়া জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। বর্তমান এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে