ইকবাল আহমেদ লিটন: আজ ২৮শে অক্টোবর বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের শাহাদত বার্ষিকী। আয়ারল্যান্ড সময় অনুযায়ী বাংলাদেশের সাথে পাচ ঘন্টার পার্থক্য তবুও বীরশ্রেষ্ঠের এই শাহাদত বার্ষিকীতে জানায় বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি। অথচ অধিকাংশ পত্রপত্রিকা না পড়তে ভিতরের পাতায় কোন রকমে নিউজটি ছাপা হয়েছিল তিনবছর আগে। যা অনেকের চোখেকে’ই ফাঁকি দিয়েছিল।

স্বাধীনতা যুদ্ধে তার অবদান: ১৯৭১ সালের ২৮শে অক্টোবর ভোরে মাধবপুর উপজেলার ধলই সীমান্তে আক্রমণকারী মুক্তিবাহিনীর প্লাটুনের এসল্ট অফিসার মেজর (অবঃ) কাইয়ুম চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি দল পাকিস্তানি হায়েনাদের উপর চারদিক থেকে সাড়াশি আক্রমণ চালায়।

ব্যাপক গোলাবর্ষনে পাকিস্তানি সেনাদের ক্যাম্পে আগুন ধরে যায়। প্রথম ইষ্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট এর সদস্য হামিদুর রহমান সীমান্ত চৌকি দখলের উদ্দেশ্যে মৃত্যুকে তুচ্ছ করে হালকা একটি মেশিনগান নিয়ে বিক্ষিপ্ত গোলাগুলির মধ্যে হামাগুড়ি দিয়ে শত্রুপক্ষের ৫০ গজের মধ্যে ঢুকে পড়েন।

এ সময় শত্রুপক্ষের একটি বুলেট তার কপালে বিদ্ধ হলে মুহুর্তেই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

দেশ হারালো এক সাহসী সুর্য সন্তান। জাতি পেল এক স্বাধীন দেশ। হে বীরশ্রেষ্ঠ, we are really Sorry!

আমরা আপনার সঠিক মুল্যায়ন করতে পাড়লাম না। plz forgive us! মহান আল্লাহ আপনাকে জান্নাত নসিব করুক, আমিন।

লেখক: সদস্য সচিব, আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে