টাচ নিউজ ডেস্কঃ বিএনপির নেতারা যখন অশোভন আচরণ ও অশ্লীল কথাবার্তা বলে বেড়ায়, তখন দেশের নারী নেত্রীবৃন্দ এত সোচ্চার হয় না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ডা. মুরাদের কর্মকাণ্ড সরকার ও দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করায় সরকার তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। কিন্তু বিএনপি নেতারা যখন এরকম কর্মকাণ্ড করেন, তখন তারা কোনো ব্যবস্থাই নেন না।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী কল্যাণ ফেডারেশন আয়োজিত মুজিব শতবার্ষিকীর উৎসব ‘তারুণ্যর তর্জনী’ শীর্ষক প্রতিযোগিতার সেরা ১০০ বিজয়ী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এসময় প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি শাহজাহান খান বক্তব্য রাখেন। পরে প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ‘দিগন্ত আলোক রেখা’ প্রদর্শনী করা হয়।

দেশব্যাপী নবম থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী মধ্যে কুইজ, রচনা প্রবন্ধ ও ফটোগ্রাফি বিষয়ক প্রতিযোগিতায় ১২ হাজার প্রতিযোগীর মধ্যে সেরা ১০০ জনকে পুরস্কৃত করা হয়।

তথ্যমন্ত্রীবলেন, বেতন-ভাতা বৃদ্ধি করেছে সরকার। কনস্টেবল বেতন পাশের বাড়ি পশ্চিমবঙ্গের চেয়ে ভালো। জনগণের সেবা নিশ্চিতের জন্য কর্মচারীদের প্রতি আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের সাথে দেশকে সম্পৃক্ত রাখতেই ডিজিটাল বাংলাদেশের আজকেই এই সময়।
ডা. মুরাদের কর্মকাণ্ড সরকার ও দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করায় সরকার তার ব্যবস্থা নিয়েছে। বিএনপি নেতারা যখন এরকম কর্মকাণ্ড করেন, তখন তারা কোনো ব্যবস্থাই নেন না। বিএনপির নেতারা যখন অশোভন আচরণ, অশ্লীল কথাবার্তা বলে বেড়ায়, তখন দেশের নারী নেত্রীবৃন্দ এত সোচ্চার হয় না।

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব শাজাহান খান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর-০১ এর মাননীয় সংসদ সদস্য ড. আনোয়ার হোসেন খান। বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী কল্যাণ ফেডারেশন এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ আকতার হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ হেদায়েত হোসেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে