টাচ নিউজ ডেস্ক: পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, রাজধানীকে বাসযোগ্য নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে হলে মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন করতে হবে। এই প্লান বাস্তবায়ন হলে রাজধানীর উন্নয়নের সকল কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করা যাবে এবং বাসযোগ্য নগরী তৈরি হবে।

মন্ত্রী বলেন, রাজধানীতে সুপেয় পানি, পয়:নিষ্কাশন, পানি শোধনাগার, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রভৃতির কাজ করা হচ্ছে। তবে আমাদের এসব কাজ করতে চ্যালেঞ্জ রয়েছে। তাই মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন হলে এগুলোর সমন্বয় আসবে এবং ধাপে ধাপে আরও উন্নয়ন হবে।

আজ রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও – এ বিশ্ব ব্যাংক আয়োজিত “পাথওয়েজ টু ট্রান্সফরম মেট্রো ঢাকা ইন্টু এ লিভেবল, প্রসপারাস এন্ড রেজিলিয়েন্ট মেগাসিটি” শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, ধীরে ধীরে আমাদের উন্নয়ন হচ্ছে। মাথাপিছু আয় বেড়েছে। সকল জায়গায় বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। গ্রামের মানুষও শহরের মত সুবিধা পাচ্ছে। এই উন্নয়ন ধরে রাখতে আমাদের আরো কাজ করে যেতে হবে।

ব্রাকের চেয়ারম্যান ও পাওয়ার এন্ড পার্টিসিপেশান রিসার্চ সেন্টার (পিপিআরসি)-র নির্বাহী চেয়ারম্যান হোসেন জিল্লুর রহমানের সঞ্চালনায় এ আলোচনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. মার্সি টেম্বন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশ্ব ব্যাংকের টেকসই উন্নয়ন বিষয়ক আঞ্চলিক পরিচালক জন রুমি।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের যে স্বপ্ন অর্থনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে , সেটাকে অর্জনের জন্য ঢাকাকে নিয়ে চিন্তা করা খুব জরুরি। তাই সময় এসেছে ঢাকাকে নিয়ে আরো চিন্তা করার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে