টাচ নিউজ ডেস্কঃ শুধুমাত্র একটি ছবিও যে হৃদয়ের কথা বলতে পারে, যে শ্লোগান দিতে পারে, কেবল একটি ছবিই যে প্রতিবাদের ভাষা হয়ে জনসমুদ্রে আছড়ে পড়ে বিক্ষোভ থেকে ছিনিয়ে আনতে পারে শান্তি চুক্তি তারই বাস্তব চিত্র ফুঁটে উঠলো আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আলোকচিত্র শিল্পী ফোজিত শেখ বাবুর একক আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে।

গত ২ ডিসেম্বর বিকাল ৩ টা থেকে পটুয়াখালীর সাগরকন্যা খ্যাত সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটার ‘হোটেল গ্রেভার ইন’ “সেভ দ্য আর্থ” প্রতিপাদ্যে হৃদয় ছোঁয়া একটি শ্লোগান নিয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ৩ দিনব্যাপী একক আলোকচিত্র প্রদর্শনী।

প্রদর্শনীর সমাপনী অনুষ্ঠানে সাবেক শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম খান (এনআই খান) বলেন, ফোজিত শেখ বাবুর পরিবেশ নিয়ে যে ছবি, এটা দেখলেই মাথায় মোচর দিয়ে উঠবে যে, আমরা কী করছি আমাদের বাংলাদেশের প্রতি, আমাদের বিলের প্রতি, আমাদের কৈ মাছের প্রতি, আমাদের টাকি মাছের প্রতি ।

নজরুল ইসলাম খান (এনআই খান) বলেন, আমি ফোজিতকে প্রোমোট করার পাশাপাশি অভিনন্দনবাদ জানাতে চাই, দেশ মা মাটির কথা চিন্তা তার এমন একটি পরিবেশ রক্ষার তার যুগান্তকারী কাজের জন্য। আমাদের খাল, বিল, নদীনালা নষ্ট করা যাবে না। সমাপনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, মাসুদ আহমেদ, অডিট জেনারেল (সিএজি), মি. এমডি সাইফ উদ্দীন, সেক্রেটারি জেনারেল ডায়াবেটিস এসোসিয়েশন, প্রফেসর এমডি আলমগীর, প্রফেসর ডা. এবিএম আবদুল্লাহ, প্রফেসর আতিকুল ইসলাম, ডা. এসএমজি ইয়াজদানী, শাহীন ইসলাম এনডিসিসহ আরো অনেক গণ্যমান্য সূধীজন।

দূষিত পানি উৎপাদনকারী সকল কারখানাতে ইটিপি প্লান্ট বসানোর দাবীতে অনুষ্ঠিত চিত্র প্রদর্শনীটি সেন্টার ফর ডেভেলপিং ম্যানেজমেন্ট এক্সিলেন্স এর (সিডিএমই) পৃষ্ঠপোষকতা করেছেন।

মাজিম এগ্রো ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ মোঘলজান রহমান মিঠুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি বিশিষ্ট লেখক ও সাহিত্যিক এসএএম শওকত হোসেন কোমলমতি শিশু ও অতিথিদের সাথে নিয়ে ফিতা কেটে চিত্র প্রদর্শনীটি উদ্বোধন করেন।

এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন উদীচীর প্রতিষ্ঠাতা কনভেনার পরিবেশবাদী কামরুল আহসান খান, মাজিম এগ্রো ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক সেলিনা সুরভী, শাহিদা ইসলাম লেখক, কন্ঠশিল্পী তারেক সৈয়দ ও কন্ঠশিল্পী মন্জু শাহ সহ আরো অনেকে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি উপভোগ করার জন্যে স্থানীয় সাংবাদিক মো. শাহরিয়ার নাজিম ও মো. ওয়াসিম এর নেতৃত্বে অসংখ্য স্কুলের কোমলমতি শিক্ষার্থীর উপস্থিতিসহ বিপুল সংখ্যক দর্শকের সমাগম ঘটে। আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি সকলের জন্য উন্মুক্ত ছিলো সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে