বাবা আমার বাবা
ইকবাল আহামেদ লিটন।

পৃথিবীতে বাবা মানে বট বৃক্ষের ছায়া।
মন্দ হোক ভালো হোক বাবা আমারই বাবা,পৃথিবীতে বাবার মতো আর আছে কে বা।
স্বগের মতো সুখ ছিল আমাদের ঘড়, সেই ঘড়ে ছিলো শুধু সোহাগে আদর ভরা।
সেই ঘড় থেকে বাবা হারিয়ে গেলেন না ফেরার দেশে।
সেই দিন থেকে আমার কপালে তাই দুঃখ নেমে এসেছে।
তাই আজ আমি বুজেছি বাবা কি ছিল।
বাবার চেয়ে দামী নয়তো কোন ধন, তুচ্ছ তানের মাঝে মানিক রতন।
টাকা দিয়ে বাবার স্নেহ যায় না কেনা, কারু সাথে হয় না বাবার তুলনা।
চোখ ভরে যায় নোনা জলে,
বুক করে ধরফর আমার বাবা মরে যাওয়ার হলো আজ ১০টি বছর।
আমায় কতো বাসতো ভালো আমার বাবজান।
ডাকতো যখন আমায় মধুর শুরে ভরে যেতো প্রান।
যখন আমি রওনা দিতাম দূরের কোন গাঁ তে, না ঘুমিয়ে থাকতো জেগে বাবা সারা রাত।
প্রতিদিন করতো যে ফোন, বলতে কোথায় কেমন আছিস,
স্বস্তি পেতো ঠিক তখনি, যখন শুনতো পৌঁছে গিয়েছি।
আজকে আর কেহ এমন করে নেয় না যে খোজ খবর?
বাবার কথা তাইতো মনে পরছে বারে বার।
আজ বাবা তোমায় ভেবে আমি ভাসছি অঝোর নয়ন জলে ।
তোমায় পেলে ঐ চরনে চুমু দিতাম বারে বার।
ভাবতে গিয়ে দূঃখ করে এমন কাদছে হতভাগার,
আদর সোহাগ বেশি পেতাম সবচেয়ে বেশি বাবার।
বাবা আমায় চলে গেছে খোদার আরশে, জান্নাতী
সুখ পেতাম বেশি বাবার পরশে।
ও দয়াময় ওগো প্রভু তোমার অপার দয়ায়
জায়গা দিও বাবাকে মোর আরশ ছায়ায়।
বাবা তোমার কবরে আজ জানাই হাজার ও সালাম, তুমি মরে যাওয়ায় আমি এতিম হয়ে গেলাম।

বিঃ দ্রঃ। বাবা সেই সন্মানিত ব্যাক্তি, যার এক ফোটা ঘামের মূল্য সন্তান পরিশোধ করতে অক্ষম।

লেখক: সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও সদস্য সচিব, আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে