টাচ নিউজ ডেস্কঃ চলতি বছর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা না নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সচিবালয়ে এসএসসি দাখিল ও সমমানের পরীক্ষা- ২০২৩ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ ইঙ্গিত দেন।

এ বছরও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা বাতিলের ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

দীপু মনি বলেন, এখন যে অবস্থা দেখা যাচ্ছে তাতে আলাদা করে বোধ হয় জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ থাকছে না। মনে হয় না, এ পরীক্ষা নিতে শিক্ষা বোর্ড প্রস্তুতির জন্য সময় পাবে। তবে অন্য শ্রেণির মতো অষ্টম শ্রেণিতেও শ্রেণির মূল্যায়ন হিসেবে স্কুলে বার্ষিক পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। যেহেতু চলতি বছরের এসএসসি-সমমান পরীক্ষা জুনে ও এইচএসসি-সমমান পরীক্ষা আগস্টে আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এজন্য নভেম্বরে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা আয়োজন করা কঠিন হয়ে পড়বে।

দীপু মনি বলেন, জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হবে কি না সেটি আগামী এক-দুই মাস ঘোষণা দেওয়া হবে। আগে এ বিষয়ে ঘোষণা দেওয়া হলে শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা থেকে অমনোযোগী হয়ে উঠবে। সে কারণে আরেকটু সময় নিয়ে এ বিষয়ে ঘোষণা দেওয়া হবে। তবে পরীক্ষা নেওয়ার চেষ্টা আমাদের থাকবে। যদি সেটা সম্ভব না হয় তবে তা বাতিলের ঘোষণা দেওয়া হবে। তবে আগামী বছর থেকে এমনিতেই জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা থাকছে না।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চলতি বছরের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। যদি কেউ বাধ্য করে শিক্ষার্থীর কাছে বোর্ডের নির্ধারিত ফি’র অতিরিক্ত অর্থ আদায় করে, তবে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ধরনের তথ্য থাকলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে জানাতে আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব ছিদ্দীকুর রহমান, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক তপন কুমার সরকার, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান (রুটিন) অধ্যাপক মশিউজ্জামান প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে