টাচ নিউজ ডেস্কঃ নতুন বছরের শুরুর দিন ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৬তম আসরের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (১লা জানুয়ারি) রাজধানীর পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) আয়োজিত এ মেলার উদ্বোধন করেন তিনি। সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে বাণিজ্য মেলা-২০২২ উপলক্ষে দেওয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই মেলা দেশি-বিদেশি উদ্যোক্তাকে তাদের পণ্যের প্রতিযোগিতামূলক সুবিধাদি এবং নতুন উদ্ভাবন সম্পর্কে ক্রেতাদের অবহিত করার সুযোগ সৃষ্টি করবে। ক্রেতারাও এ বৃহৎ আয়োজন থেকে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে পণ্য ক্রয়ের সুবিধা পাবেন।’ এ মেলার সার্বিক সাফল্য কামনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে বাণিজ্য মেলার আয়োজন করা হয়েছে। স্টল কমিয়ে খালি জায়গা বেশি রাখা হয়েছে। করোনার কারণে অনেক বিদেশি প্রতিষ্ঠান মেলায় আসেনি। নতুন ভেন্যুর কারণে বিনিয়োগ ঝুঁকির কথা ভেবে দেশি প্রতিষ্ঠানগুলোও স্টল দেয়নি।’

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর যৌথ উদ্যোগে ১৯৯৫ সাল থেকে এই মেলার আয়োজন করছে। তবে এবারই প্রথম স্থায়ী মেলা কমপ্লেক্সে মেলার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এবং সাপ্তাহিক ছুটির দিনে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা চলবে। প্রবেশ মূল্য বড়দের জন্য ৪০ ও অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

মেলায় দর্শনার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে স্বল্প ভাড়ায় বিআরটিসি’র ৩০টি বাস নিয়মিত কুড়িল বিশ্বরোড থেকে মেলা প্রাঙ্গণ পর্যন্ত যাতায়াত করবে। ভাড়া জনপ্রতি ৩০ টাকা। মতিঝিল ও মিরপুর থেকেও মেলা প্রাঙ্গণ পর্যন্ত বিআরটিসি’র বাস চলবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে