টাচ নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী কাচার জেলায় টানা দুই মাস রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করেছে আসাম কর্তৃপক্ষ। গত মঙ্গলবার থেকেই এ বিধিনিষেধ কার্যকর হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যটি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

কাচার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কীর্তি জাল্লি ১৪৪ ধারা জারি করে ঘোষণা দিয়েছেন, ওই এলাকায় ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের এক কিলোমিটারের মধ্যে সূর্যাস্তের পর থেকে সূর্যোদয় পর্যন্ত কেউ চলাচল করতে পারবে না।

ভারতীয় কর্মকর্তাদের দাবি, বাংলাদেশ থেকে ‘অননুমোদিত পণ্য, গবাদিপশু ও দুর্বৃত্ত’ প্রবেশ প্রতিরোধে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

রাত্রিকালীন কারফিউ জারির ফলে সুরমা নদীর ভারত-নিয়ন্ত্রিত তীরে রাতের বেলা সবধরনের চলাচল পুরোপুরি নিষিদ্ধ। নদীটিতে মাছধরা নৌকা চলাচলেও বিধিনিষেধ থাকবে। তবে কাটিগোরা সার্কেল অফিসার চাইলে স্থানীয়দের মাছ ধরার অনুমতি দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে কাচার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও ঢোলছেড়া বিএসএফ কম্যান্ড্যান্টের অনুমতির একটি অনুলিপিও সঙ্গে রাখতে হবে।

আদেশে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সীমান্ত সংলগ্ন পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে কাচার জেলায় সূর্যাস্ত থেকে সূর্যোদয় পর্যন্ত কেউ গাড়ি, ঠেলাগাড়ি বা রিকশায় করে চিনি, চাল, গম, ভোজ্যতেল, কেরোসিন বা লবণ পরিবহন করতে পারবে না। তবে কাটিগোরা সার্কেল অফিসার প্রয়োজনবোধে জায়গাবিশেষ কড়াকড়ি শিথিল করতে পারেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে