টাচ নিউজ ডেস্কঃ আগামী ১৭ মার্চ পর্যন্ত অমর একুশে গ্রন্থমেলার সময়সীমা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ। রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

এর আগে মন্ত্রী বলেছিলেন, করোনা সংক্রমণের হারের ওপর নির্ভর করবে মেলার সময় বাড়াবে কি না। সংক্রমণ কমে এলে মেলার সময় বাড়ানো হতে পারে।

ওই সময় তিনি বলেছিলেন, করোনার কারণে মেলা যথাসময়ে শুরু করতে পারিনি আমরা। তাই আপাতত দুই সপ্তাহের জন্য মেলার আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ধরন ওমিক্রনের প্রভাবে দৈনিক শনাক্ত রোগী বাড়তে থাকায় এবারের বইমেলা পিছিয়ে ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু করার পরিকল্পনা করা হয়।

তবে আগে থেকে প্রকাশক সমিতির প্রস্তাব ছিল, ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু করে ১৭ মার্চ পর্যন্ত হোক এবারের বইমেলা। পরে সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১৪ দিন বইমেলা চালানোর কথা জানায় সংস্কতি মন্ত্রণালয়। সেই সময় বাড়িয়ে এবার ১৭ মার্চ করা হলো।

এর আগে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বিকেল সাড়ে ৪টায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বাংলা একাডেমি আয়োজিত ‘অমর একুশে বইমেলা ২০২২’ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এবারের বইমেলার মূল প্রতিপাদ্য- ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী’।

ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে বইমেলা শুরু হওয়ার রীতি থাকলেও করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এবার বইমেলা পিছিয়ে শুরু হয়ে মাসের মাঝামাঝিতে। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা রয়েছে বইমেলা। রাত ৮টার পর নতুন করে কেউ মেলায় প্রবেশ করতে পারছেন না। ছুটির দিন বইমেলা বেলা ১১টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত চলছে। এছাড়া মহান একুশে ফেব্রুয়ারি মেলা শুরু হয় সকাল ৮টা থেকে চলে রাত ৯টা পর্যন্ত।

বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ এবং ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রায় সাড়ে ৭ লাখ বর্গফুট জায়গায় বইমেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মেলায় মোট ৩৫টি প্যাভিলিয়নসহ একাডেমি প্রাঙ্গণে ১০২টি প্রতিষ্ঠানকে ১৪২টি এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৪৩২টি প্রতিষ্ঠানকে ৬৩৪টি ইউনিট; মোট ৫৩৪ টি প্রতিষ্ঠানকে ৭৭৬ টি ইউনিট বরাদ্দ দেওয়া হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে