টাচ নিউজ ডেস্কঃ দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় স্কুল-কলেজ ও সমমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) থেকে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্কুল-কলেজ ও সমমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকবে।

আজ (শুক্রবার) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জেলা ও মাঠ প্রশাসন অধিশাখা থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিষয়ে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিজ নিজ ক্ষেত্রে অনুরূপ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এরই মধ্যে বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আমরা তো জাতীয় সিদ্ধান্তের বাইরে না। সরকারের সিদ্ধান্তকে আমাদের অনুসরণ করতে হবে। করোনা সংক্রমণ রোধকল্পে জাতীয় সিদ্ধান্তের সাথে মিল রেখে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ও বন্ধ থাকবে।

তিনি বলেন, সশরীরে সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে তবে আমাদের শিক্ষার্থীদের যাতে ক্ষতি না হয় সেজন্য অনলাইন ক্লাস চলবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. শিরিন আক্তার বলেন, আমরা আগেই একাডেমিক কাউন্সিলে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিলাম। সরকারি প্রজ্ঞাপনের অপেক্ষায় ছিলাম আমরা। এখন যেহেতু প্রজ্ঞাপন হয়ে গেছে, আমরা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দিব। তবে অনলাইনে আমাদের ক্লাস চলবে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, আমরা আগামীকাল (শনিবার) জরুরি সভা ডেকেছি। সেখানে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে আমরা সরকারি সিদ্ধান্তের বাইরে যাব না।

এ বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ইমদাদুল হক বলেন, আমরা আগে থেকেই অনলাইন ক্লাসের বিষয়ে ভেবে রেখেছি। এখন যেহেতু সরকারি প্রজ্ঞাপন হয়েছে, অনলাইনে ক্লাস-পরীক্ষা চালু রেখে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেবো।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে