টাচ নিউজ ডেস্কঃ ফেনসিডিলকে মাদক হিসেবে উল্লেখ করে তা পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

একই সঙ্গে ২৫০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারের মামলায় যশোরের বাদল কুমার পালকে বিচারিক আদালতের দেওয়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডও বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ রায় দেন।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বাদল পাল ১৯৯৭ সালে ২৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার হন। ২০০০ সালে ওই মামলায় তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়।

রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে হাইকোর্ট খালাস দেন বাদলকে। এর পর ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে যায় রাষ্ট্রপক্ষ। পরে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে ওই মামলার শুনানি হয়।

এ নিয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিত দেবনাথ বলেন, ফেনসিডিলের অন্যতম উপাদান কোডিন, যা মাদক হিসেবে স্বীকৃত। মঙ্গলবার সকালে আপিল বিভাগ হাইকোর্টের রায় স্থগিত করে বলেন, বাদলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বহাল থাকবে।

আপিল বিভাগ একই সঙ্গে জানান, ফেনসিডিল মাদক। এই মাদক পরিবহন করা অবৈধ।

এই মামলার রায়ের মধ্য দিয়ে ফেনসিডিল সংক্রান্ত অনেক মামলার ভাগ্য নির্ধারণ হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গত ১৯ জানুয়ারি আপিলের শুনানি শেষে ১ ফেব্রুয়ারি রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য করেন। মঙ্গলবার আপিল বিভাগ হাইকোর্টের রায় বাতিল করে বিচারিক আদালতের রায় বহাল রাখার ঘোষণা দেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে