টাচ নিউজ ডেস্কঃ রাজধানীর লালবাগের হোসেন উদ্দিন রোডে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে মো. জাহিদ হাসান (১৮) নামে এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে।

শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ২টায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের বড় ভাই আমির হোসেন মিলন শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) বলেন, আমার ভাই আজিমপুরে রায়হান ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। গতকাল (শুক্রবার) আমাদের বাসায় মেহমান আসে। রাতে আমরা তাদের নিয়ে ঘুরতে বের হই। পরে বাসায় ফিরে দেখি সে গলায় ফাঁস দিয়েছে। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে ডা. মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগে ফেসবুকে সে প্রেম সংক্রান্ত একটি পোস্ট দেয়। তার ভাবীকে বলেছিল সে একটি মেয়েকে ভালোবাসে। ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর আমার ভাই আত্মহত্যা করেছে। ফোনটি পুলিশের হেফাজতে আছে। সেটি ওপেন করলে কার সঙ্গে চ্যাটিং করত সেটা জানা যাবে। আমরা দুই ভাই-এক বোন। জাহিদ ছিল ছোট।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালে পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক (ইনচার্জ) বাচ্চু মিয়া জানান, গভীর রাতে এক যুবককে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের বড় ভাই জানান, ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে। মরদেহ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি লালবাগ থানা তদন্ত করে দেখছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে