সবার আগে প্রিয়া সাহার বক্তব্য শুনবে সরকার, এরপর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে কোন আইনি প্রক্রিয়ায় যাবে না সরকার।

রোববার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মেট্রোরেল সংক্রান্ত এক অনুষ্ঠান শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের প্রধানমন্ত্রীর বরাত দিয়ে বলেন, প্রিয়া সাহাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়া হবে। ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাতে কথা বলার বিষয়টি এবং এর পেছনে কোনও ষড়যন্ত্র আছে কি না সেসব বিষয় এখনো পরিষ্কার নয়।

তিনি জানান, রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা এখনই করা হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে নির্দেশনা দিয়েছেন। এ বিষয়ে সে অনুযায়ীই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত সপ্তাহে ধর্মীয় স্বাধীনতা ও সহিঞ্ঝুতার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন ধর্মীয় নেতা ও প্রতিনিধিদের সঙ্গে তার অফিসে কথা বলেন। এতে বাংলাদেশি পরিচয় দিয়ে প্রিয়া সাহা ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশে প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান নিখোঁজ হয়েছেন। বর্তমানে এখানে ১ কোটি ৮০ লাখ সংখ্যালঘু রয়েছে উল্লেখ করে তিনি ট্রাম্পের সহায়তা চান। প্রিয়া সাহা বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ -খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির একজন সাংগঠনিক সম্পাদক। এছাড়াও তিনি বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) ‘শারি’-এর নির্বাহী পরিচালক হিসেবেও দায়িত্বরত ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে