আনিছ আহম্মদ হানিফ, চাটখিল প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়ন থেকে মোঃ মাসুদ (৩৮) নামের এক প্রবাসীকে অস্ত্রের মুখে জ্জিম্মি করে অপহরণ করা হয়। পরে প্রবাসীর সাথে অজ্ঞাত এক নারীকে দিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় ও হাতে ইয়াবা দিয়ে ছবি তুলে সেগুলো বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ১লাখ ৫৩হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায় করে সংবদ্ধ একটি চক্র। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনার মূল হোতা আকাশ বাহিনীর প্রধান আকাশ ও তার দুই সহযোগিকে গ্রেপ্তার করে।

শুক্রবার সকালে গ্রেপ্তারের পর তাদের দুপুরে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, চাটখিল উপজেলার পশ্চিম শোশালিয়া এলাকার আমিন উল্যার ছেলে আকাশ বাহিনীর প্রধান ছালা উদ্দিন কামরান আকাশ (২০), একই এলাকার বনি আমিনের ছেলে দিদার হোসেন জনি (১৮) ও লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার দরবেশপুর ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামের হাফিজ পাটোয়ারীর ছেলে বাবু হোসেন (৩০)।

প্রবাসীর অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৫ডিসেম্বর সকাল ১০টার দিকে নিজ বাড়ী থেকে চাটখিল বাজারের উদ্দেশ্যে বের হন প্রবাসী মাসুদ। পথে তিনি খিলপাড়া রুহুল আমিন সড়কের তিন রাস্তার মোড়ে এসে একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশায় উঠেন। ওইসময় সিএনজিতে একজন নারী ও একজন পুরুষ ছিলেন। কিছু পথ যাওয়ার পর পাশের ওই নারী ও পুরুষ মাসুদকে ছুরির ভয় দেখিয়ে চোখ, হাত ও মুখ বেঁধে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। ওইস্থানে আরও ১০-১২জন তাদের সাথে যুক্ত হয়ে মাসুদের ব্যবহৃত মোবাইলটি নিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জখম ও বিবস্ত্র করে নারীর সাথে যৌথ অশ্লীল ছবি ধারণ করে।

পরে হুমকি দেওয়া হয়ে ছবিগুলো প্রবাসী মাসুদের পরিবারের লোকজনসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়া হবে। এসময় মুক্তিপণ বাবদ ১০লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে আকাশ বাহিনী। তাদের নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে মাসুদ তার পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদের সাথে যোগাযোগ করে বিকাশসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ১লাখ ৫৩হাজার টাকা অপহরণকারীদের দেন। মাসুদ অসুস্থ্য হয়ে পড়লে অপহরণকারীরা ওইদিন রাতে একটি সিএনজি যোগে চোখ বাঁধা অবস্থায় মাসুদকে দশঘরিয়া বাজারের পূর্ব পাশের সড়কে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে প্রবাসী মাসুদ বাদী হয়ে তিনজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার সূত্র ধরে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে