টাচ নিউজ ডেস্ক: ‘উইটসা এমিনেন্ট পার্সনস অ্যাওয়ার্ড- ২০২১’ পুরস্কার লাভ করায় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দ মিছিল সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগ।

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ ও সাধারণ সম্পাদক জননেতা আফজালুর রহমান বাবু’র নেতৃত্বে এক বিশাল আনন্দ মিছিল দোয়েল চত্বর থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

সংগঠনের সভাপতি জননেতা নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন, ‘উইটসা এমিনেন্ট পার্সনস অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা। আমরা অত্যন্ত গর্বিত ও আনন্দিত। আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই। জননেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বসভায় বাংলাদেশকে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেছেন। শেখ হাসিনার জন্য বাংলাদেশ ধন্য,ধন্য পিতার ধন্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি প্রণয়ন ও তা বাস্তবায়নে বলিষ্ঠ নেতৃত্বদান এবং তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে অনন্য সাধারণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার হিসাবে জননেত্রী শেখ হাসিনা এই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। বিশ্বের ৮০টি দেশের সদস্যভুক্ত সংগঠন ‘ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস অ্যালায়েন্স’ তথ্যপ্রযুক্তির অলিম্পিক খ্যাত ‘উইটসা ২০২১’ পুরস্কার প্রদান করে। ঢাকায় অনুষ্ঠিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের বিশ্ব সম্মেলন ‘ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি ২০২১ (ডব্লিউসিআইটি২০২১) এর তৃতীয় দিনে শনিবার উইটসা মহাসচিব ড. জেমস এইচ পয়জান্টের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘসময় ধরে সরকার পরিচালনা করছেন। মৌলবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেওয়ার পাশাপাশি শেখ হাসিনা বরাবরই বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের জন্য খাদ্যের নিশ্চয়তা ও ভোটাধিকার নিশ্চিত করে গেছেন, জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তিনি বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করেছেন। দেশের আর্থ-সামজিক উন্নয়ন তরান্বিত হয়েছে। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানজনক সব ডিগ্রি অর্জন করে বাংলাদেশের জন্য গৌরব বয়ে এনেছেন তিনি এবং নারী ও কন্যাশিশুর শিক্ষা নিশ্চিত করায় বিশেষ অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসেবে ইউনেস্কোর বিশেষ সম্মাননার মতো আরও অনেক সম্মানজনক পুরস্কার ও স্বীকৃতি অর্জন করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ইসহাক মিয়া, দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি কামরুল হাসান রিপন এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক তারিক সাঈদ ও উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান নাঈম।

উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, নির্মল কুমার চ্যাটার্জী, কাজী শহিদুল্লাহ লিটন, মজিবুর রহমান স্বপন,আবদুল আলিম বেপারী, সৈয়দ নাসির উদ্দিন, অ্যাডঃ কাজী শাহানারা ইয়াসমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল সায়েম, কৃষিবিদ আ ফ ম মাহবুবুল হাসান মাহবুব, আরিফুর রহমান টিটু, আবিদ আল হাসান, প্রচার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বিটু, গণ -যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ক সম্পাদক ওবায়দুল হক খান সহ ঢাকা মহানগর উত্তর দক্ষিণের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে