আনিছ আহম্মদ হানিফ, চাটখিল প্রতিনিধিঃ চাটখিল পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের মাইজের ভূঁইয়া বাড়ির অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হক ভূঁইয়ার কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে সৃষ্ট ছাব কবলা দলিলে স্বাক্ষর ও টিপসই নিতে এসে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছে চাটখিল সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের পিয়ন শেখ ফরিদ।

ঘটনাটি ঘটেছে গত রোববার রাতে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হক ভূঁইয়ার ছেলে ঔষধ ব্যাবসায়ী মাসুদ আলম তার পৈতৃক সম্পত্তির কিছু সম্পত্তি গোপনে ছাব কবলা দলিল সৃষ্টি করে প্রতারনার মাধ্যমে রেজিস্ট্রি অফিসের পিয়ন চাটখিল মাহাথির বাড়ির মৃত ছাখায়েত উল্লার ছেলে শেখ ফরিদ কে দিয়ে তার বাবার কাছ থেকে স্বাক্ষর ও টিপ সই আনার জন্য রোববার রাত এগারোটায় তার বাড়ীতে নিয়ে আসে। ফরিদ টিপসই নিতে ঘরে ঢুকে টিপসই নেওয়ার প্রস্তুতি গ্রহণ করে এসময় মুক্তিযোদ্ধার ছোট ছেলে রবিউল হোসেন এসে শেখ ফরিদ কে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এ সময় তার কাছ থেকে দলিলটি ছিনিয়ে নেয় এবং জিজ্ঞাসাবাদে সে প্রতারণার কথা স্বীকার করে।

পরে বাড়ির লোকজন এসে ফরিদকে গনধোলাই এবং মাসুদ আলম কে মারধর করে বাড়ির পার্শ্ববর্তী পৌরসভার মেয়রের কাছে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

স্থানীয় কাউন্সিলর নওশাদ উল করিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে চাটখিল সাব অফিসের সাব রেজিস্ট্রার আবু মুসার সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন এবং তিনি বিস্মিত হয়েছেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তিনি দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।
চাটখিল পৌরসভার মেয়র নিজাম উদ্দিন ভিপির সাথে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন ঈদের পরে বিষয়টা নিয়ে তিনি বসবেন বলে জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে