টাচ নিউজ ডেস্কঃ পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি শপথবাক্য পাঠ করাতে অপারগতা প্রকাশ করায় পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে দেশটির নতুন মন্ত্রীদের শপথগ্রহণের দিন।

বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে সোমবার (১৮ এপ্রিল) জিও নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি মন্ত্রীদের শপথ পড়াতে অপারগতা প্রকাশ করায় নতুন মন্ত্রীদের শপথবাক্য পাঠ করাবেন সিনেটের চেয়ারম্যান সাদিক সানজারানি।

এদিকে প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির কার্যালয়ের সূত্র জানায়, সোমবার (১৮ এপ্রিল) স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৮টায় পাকিস্তানের নতুন মন্ত্রীদের শপথ নেওয়ার কথা থাকলেও, মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) বা বুধবার (২০ এপ্রিল) তারা শপথ নিতে পারেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর দফায় দফায় জোটের শরিকদের সঙ্গে বৈঠক করে মন্ত্রিসভা গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শাহবাজ শরিফ।

তবে পাকিস্তানের বিভিন্ন গণমাধ্যমের দাবি, মন্ত্রিত্ব বণ্টন নিয়ে জোটের শরিকদের সঙ্গে মতবিরোধ দেখা দিয়েছে শাহবাজের। জমিয়ত উলেমা-ই-ইসলাম-ফজল বা জেইউআই-এফ মন্ত্রিসভায় যোগ দেবে না বলে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। আর পাকিস্তান পিপলস পার্টি বা পিপিপির কো-চেয়ারম্যান আসিফ আলি জারদারিও জোটের শরিকদের মন্ত্রিত্ব বণ্টনে তার দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণের অঙ্গীকার করেছেন।

শাহবাজ সরকারের তথ্যমন্ত্রী হতে পারেন মরিয়ম নওয়াজ। সংবাদমাধ্যম ডনকে তিনি জানান, মন্ত্রিসভায় ১৪টি মন্ত্রণালয় পাবে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ। প্রতিরক্ষা, অর্থ, স্বরাষ্ট্রের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়গুলোর দায়িত্ব নিতে চায় পিএমএল-এন। আর নতুন মন্ত্রিসভায় পিপিপি পাবে ১১টি মন্ত্রণালয়। অন্য জোটগুলোকেও মন্ত্রিসভায় জায়গা দেওয়া হচ্ছে।

শাহবাজের দলের একাধিক নেতা জানান, পিপিপির চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টোকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিতে বলা হয়েছে। তবে, বিলাওয়াল মন্ত্রিসভায় যোগ দেবেন কি না, তা এখনো অনিশ্চিত।

এদিকে মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে এবং নতুন মন্ত্রীদের শপথ নিয়ে নানা নাটকীয়তার মধ্যেই জম্মু-কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। উভয় দেশের শান্তির জন্যই বিরোধ নিরসন হওয়া দরকার বলে জানান শাহবাজ। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনো কিছু জানায়নি দিল্লি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে