পারভেজ উজ্জ্বল, নীলফামারী: আবারও জমি নিয়ে দন্দে জরিয়ে পরেছে বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম আমিনুল হক পাটাশ এবং আপন ভাতিজা ফরহাদ নওরোজ নাহিন।

সরেজমিনে জানা যায়, দীর্ঘ এক বছর ধরে বণ্টননামায় টাইপিং ভুল হওয়ার কারণে বেনালিশী দাগের কিছু সম্পত্তি সঠিকভাবে সন্নিবেশিত না হওয়ায় মোহাম্মদ ফরহাদ নওরোজ নাহিন নামে একজন বিপাকে পড়েছেন। তার আইনজীবী গোলাম মোস্তফা সজীব ভুল সংশোধন করার জন্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম আমিনুল হক পাটাস কে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন।

নোটিশে বলা হয় গত বছরের ২৮ মার্চ বাদী মোহাম্মদ ফরহাদ নওরোজ নাহিন ও আমিনুল হক পাটাস এরমধ্যে সি আর ৪৪৭/২১ নং মামলাটি আপস নিষ্পত্তি করে নেন । আপোষ মামলায় ২ নং শর্ত অনুযায়ী ১৮৭১/২০২১ নং বণ্টননামা দলিল লেখক এর অনিচ্ছাকৃত টাইপিং ভুল করার কারণে বে নালিশি দাগের কিছু সম্পত্তি সঠিকভাবে সন্নিবেশিত না হওয়ায় এ কে এম আমিনুল হক পাটাশের বিরুদ্ধে আইনি লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করে।

গত ১ এপ্রিল শুক্রবার আমিনুল হক পটাশ কে মিসটেক গুলি সংশোধন করতে বললে তিনি অস্বীকার করায় ২ ও ৩ নং শর্ত অনুযায়ী নোটিশ প্রাপকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান ভাতিজা মোহাম্মদ ফরহাদ নওরোজ নাহিন।

এবিষয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম আমিনুল হক পাটাশ কে বলা হলে তিনি তার সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে তিনি শীঘ্রই ব্যাবস্থা নিবেন। এই নিয়ে শহরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে