টাচ নিউজ ডেস্কঃ আগামী ৯ জুন জাতীয় সংসদে আসন্ন ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, আগামী বাজেট হবে সাধারণ মানুষের মঙ্গলের বাজেট। বাজেটে দেশের অর্থনীতিকে চাঙা রাখতে যা যা প্রয়োজন সেসব উদ্যোগ নেওয়া হবে। আজ বুধবার (২০ এপ্রিল) অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি ও সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বিশ্ব অর্থনীতিতে মন্দা আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ অবস্থায় আমদানিতে নিরুৎসাহিত করা হবে কিনা। এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের রপ্তানির পাশাপাশি আমদানিও বাড়ছে। এটা বন্ধ করা যাবে না। তবে প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি নিয়ন্ত্রণের কোন ইচ্ছে সরকারের নেই। মেশিনারিজ, শিল্পে ব্যবহার্য কাঁচামাল, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য এগুলোর আমদানি অব্যাহত থাকবে। তবে অপ্রয়োজনীয় এবং বিলাশবহুল পণ্য আমদানির ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হতে পারে।

তিনি বলেন, বাজেট প্রণয়নের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। এখনো কোন কিছু চূড়ান্ত হয়নি। রাজস্ব আদায় এবং বাজেট বাস্তবায়নে সম্পদ আহরন কিভাবে হবে সে নিয়ে অর্থ বিভাগ, এনবিআরসহ সরকারি সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিভাগের সঙ্গে ইতোমধ্যে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। আরও সভা হবে সেখানে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে।

গতবছর ৩ জুন জাতীয় সংসদে চলতি ২০২১-২২ অর্থ বছরের জন্য ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার বাজেট উত্থাপন করেছিলেন অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল। আগামী ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেটের আকার মোটামুটি ৬ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকার কাছাকাছি হতে পারে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

নতুন বাজেট কেমন হবে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, এ বছরের বাজেট অন্যান্য বছরের মত না। এবার আরও ট্রান্সপারেন্ট উপায়ে বাজেট প্রণয়ন করা হচ্ছে। বাজেট কত হবে খাতওয়ারি বরাদ্দ কত হবে এসব নিউজ পত্রপত্রিকায় আসতে শুরু করেছে। এবার ইনশাআল্লাহ জুন মাসের ৯ তারিখে বাজেট উত্থাপন করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে