টাচ নিউজ ডেস্কঃ আগামী বুধবার থেকে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে চলাচল করবে ২১টি ফেরি। আজ সোমবার সকালে বাংলাদেশ প্রতিদিনের কাছে একথা জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (বাণিজ্য) এসএম আশিকুজ্জামান।

তিনি বলেন, বর্তমানে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১৮টি ফেরি রয়েছে। বুধবারের মধ্যেই এরুটে আরও ৩টি ফেরি যুক্ত করা হবে। ঈদযাত্রায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের এ বছর সর্বোচ্চ সংখ্যক ফেরি চলাচল করবে। ঈদের ৫দিন আগের থেকে অপচনশীল দ্রব্য বহনকারী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে জরুরী পণ্য ও কাঁচামালবাহী ট্রাক চলাচল করবে। সব কিছু মিলিয়ে ২১টি ফেরি চলাচল করলে যাত্রী ও চালকদের তেমন ভোগান্তি হবে না।

ফেরিগুলোর মধ্যে কয়টি রো-রো ফেরি থাকবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঈদযাত্রায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে এবার ১২টি রো-রো ফেরি চলাচল করবে। এছাড়া ৬টি ইউটিলিটি, ২টি ড্রাম ফেরি ও ১টি ইউটিলিটি ফেরি চলাচল করবে।
আজ দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় দেখা যায়, দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক এলাকায় ফেরিপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় সাত শতাধিক যানবাহন। যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক এলাকায় শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে ফেরিপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় অর্ধশত পণ্যবাহী ট্রাক ও কার্ভাডভ্যান।

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়া প্রান্তে ফেরিপারের অপেক্ষায় রয়েছে ৮৪০ টি ছোট বড় যানবাহন।

যাত্রী ও চালকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ৯ থেকে ১২ ঘন্টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে ফেরি নাগাল পাওয়া যাচ্ছে। তবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস পারাপার করার কারণে বাসযাতীদের ভোগান্তি কম হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. শিহাব উদ্দীন বলেন, দৌলতদিয়াতে ১৮টি ফেরি রয়েছে। বর্তমানে ১৬টি ফেরি চলাচল করছে। বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন ও শাহ জালাল মেরামতের জন্য ভাসমান কারখানায় রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে