টাচ নিউজ ডেস্কঃ মহামারি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত একদিনে বিশ্বে ৩ হাজার ৫৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে এ ভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন ১২ লাখ ২ হাজার ৫২৩ জন। এছাড়া একদিনে সুস্থ হয়েছেন ১১ লাখ ৯৩ হাজার ৪১৭ জন।

এ নিয়ে করোনায় বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬১ লাখ ৯০ হাজার ৮৫২ জনে। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৯ কোটি ৫০ লাখ ৩৪ হাজার ৫৩৭ জনে। এছাড়া করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ৪৩ কোটি ৬ লাখ ৩৮ হাজার ২৬৭ জন।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৮টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডো মিটারস থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ভারতে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৯২৬ জনের এবং মারা গেছেন ৪২ জন। এ নিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো চার কোটি ৩০ লাখ ৩১ হাজার ৮৫১ জনে। তাদের মধ্যে মারা গেছেন পাঁচ লাখ ২১ হাজার ৫৬০ জন। করোনা থেকে সেরে উঠেছেন চার কোটি ২৪ লাখ ৯৭ হাজার ৫৬৭ জন।

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকার শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় ৩১ হাজার ১১৮ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন ৪৮৩ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো আট কোটি ১৯ লাখ ৫০ হাজার ২৪৭ জনে। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ১০ লাখ ১০ হাজার ৫৩৭ জন। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ছয় কোটি ৬০ লাখ ৮৮ হাজার ১৫১ জন।

এ সময়ে বাংলাদেশে করোনায় কারো মৃত্যু হয়নি। ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩৬ জনের।

এছাড়া ব্রাজিলে একদিনে মারা গেছেন ১৯৬ জন, ইতালিতে ১৫০ জন, জাপানে ৬০ জন, ইন্দোনেশিয়ায় ৪৩ জন, ফ্রান্সে ১২৮ জন, জার্মানিতে ৩৩৩ জন, রাশিয়াতে ২৯১ জন, দক্ষিণ কোরিয়ায় ৩৭১ জন, যুক্তরাজ্যে ২৩৩ জন এবং হংকংয়ে মারা গেছেন ১১১ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে এশিয়ার পরাশক্তি চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ প্রাণঘাতী ভাইরাসটিকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি সংস্থাটি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে