টাচ নিউজ ডেস্ক: থাইল্যান্ডে করোনা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে। নতুন করে সেখানে একদিনেই আক্রান্ত হয়েছে ২০ হাজার ২শ জন। একই সময়ে মারা গেছে ১৮৮ জন। করোনা মহামারি শুরুর পর দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত ও মৃত্যুর এই সংখ্যা সর্বোচ্চ। ফলে সেখানে বিধিনিষেধ বাড়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে বলে আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

থাইল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত দেশটিতে ৬ লাখ ৭২ হাজার ৩৮৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। করোনা সংক্রমণে মারা গেছে ৫ হাজার ৫০৩ জন।

এর আগে গত শনিবার দেশটিতে সংক্রমণ ও মৃত্যুর রেকর্ড হয়। সে সময় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮ হাজার ৯১২ এবং মারা গেছে ১৭৮ জন। এর একদিন পরেই রাজধানী ব্যাংকক এবং অন্যান্য উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা প্রদেশগুলোতে বিধিনিষেধ কঠোর করে থাইল্যান্ড। মঙ্গলবার থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাসহ শপিংমল বন্ধ এবং ২৯টি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাকে ‘ডার্ক রেড জোন’ হিসেবে তালিকাভূক্ত করে সেখানে কারফিউ জারি করা হয়।

আগামী ১৮ আগস্ট এই বিধিনিষেধ পর্যালোচনা করা হবে। থাইল্যান্ড সরকারের কোভিড-১৯ টাস্ক ফোর্সের মুখপাত্র আপিসামি সিরাংসান বলেন, যদি পরিস্থিতির উন্নয়ন না ঘটে তবে বিধিনিষেধ ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে